সালিশে যুবককে ১০১ জুতাপেটা, ইউপি সদস্যসহ আটক ৫

প্রকাশ: ২৬ এপ্রিল ২০১৯      

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি

গৃহবধূকে অশালীন প্রস্তাব দেওয়ায় ঢাকার ধামরাইয়ে গ্রাম্য সালিশের নামে এক যুবককে ১০১টি জুতাপেটা ও জুতার মালা পরিয়ে গ্রাম ঘোরানো হয়েছে। এ ঘটনায় শুক্রবার পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন- কুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য শহিদুল ইসলাম, গৃহবধূর স্বামী বানেশ্বর গ্রামের আসলাম হোসেন, শ্বশুর কফিল উদ্দিন, বাবা হীরা নদী কুল্লা গ্রামের জুলহাস উদ্দিন ও আওলাদ হোসেনের ছেলে মহিদুল ইসলাম।

এলাকাবাসী, পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ধামরাইয়ের সোমভাগ ইউনিয়নের বানেশ্বর গ্রামের আসলাম হোসেনের স্ত্রী তিনা বেগমকে ওই যুবক কয়েকদিন আগে অশালীন প্রস্তাব দেয়। এ নিয়ে শুক্রবার ওই গৃহবধূর বাড়িতে কুল্লা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে গ্রাম্য সালিশ বসে। সালিশে যুবককে দোষী সাব্যস্ত করে ১০১টি জুতাপেটা ও গলায় জুতার মালা পরিয়ে পুরো গ্রাম ঘোরানো হয়। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দিলে ওই পাঁচজনকে আটক করা হয়।

ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।