মেঘনায় ট্রলারডুবি: নিখোঁজ পুলিশ সদস্যের লাশ উদ্ধার

প্রকাশ: ০৩ এপ্রিল ২০১৯      

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দায়িত্ব পালন শেষে কেন্দ্র থেকে ফেরার পথে ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ট্রাফিক পুলিশের টিএসআই সেলিম মিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার সকালে বন্দর উপজেলার দীঘিরপাড় এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীর মোহনা থেকে ওই লাশ উদ্ধার করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক মামুনুর রশিদ জানান, নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের টিএসআই সেলিম মিয়ার লাশ উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোপিনাথপুর গ্রামের ইয়ার আলী শেখের ছেলে।

গত ৩১ মার্চ সোনারগাঁ উপজেলার চর কিশোরগঞ্জের বালুরঘাট এলাকার চরহোগলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন শেষে প্রিসাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং এজেন্ট, আনসার সদস্যসহ ২২ জনের একটি দল ট্রলারে করে বৈদ্যেরবাজার ঘাটের উদ্দেশে রওনা দেয়। পথে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে প্রবল ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলারটি মেঘনা নদীর চরহোগলা এলাকায় উল্টে যায়। তখন ১৯ জন তীরে উঠলেও নিখোঁজ ছিলেন প্রিসাইডিং অফিসার বোরহানউদ্দিন, টিএসআই সেলিম মিয়া ও নারী আনসার সদস্য রিতা আক্তার। 

নিখোঁজের পরদিন নারী আনসার সদস্য রিতা আক্তার, দু'দিন পর প্রিসাইডিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করা ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) মেঘনাঘাট শাখা ব্যবস্থাপক বোরহানউদ্দিনের লাশ উদ্ধার করা হয়। সর্বশেষ বুধবার সকালে সেলিম মিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়।

এদিকে ট্রলারডুবিতে দুর্ঘটনার শিকার আহত প্রত্যককে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার ও নিহতদের পরিবারকে সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা দেন নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দিন।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ তিনজনের লাশ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।