খুলনায় গৃহবধূকে হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯     আপডেট: ১২ জুন ২০১৯   

 খুলনা ব্যুরো

আসামি রফিকুল ইসলামকে আদালত থেকে কারাগারে নেওয়া হচ্ছে         -সমকাল

আসামি রফিকুল ইসলামকে আদালত থেকে কারাগারে নেওয়া হচ্ছে -সমকাল

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার চন্দনীমহল গ্রামের গৃহবধূ হালিমা বেগম হত্যা মামলায় আসামি রফিকুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুর ১২টায় খুলনা জেলা ও দায়রা জজ মো. মশিউর রহমান এ রায় দেন।

রায় ঘোষণার পর আসামি রফিকুল ইসলামকে আদালত থেকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। আসামি রফিকুল ইসলাম ক্রিসেন্ট জুট মিলের শ্রমিক ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট কাজী আবু শাহিন জানান, ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর চন্দনীমহল গ্রামের রফিকুল ইসলাম একই গ্রামের মোহাম্মদ জিন্নাত আলী শেখের বাড়িতে যান। সেখানে গিয়ে তার স্ত্রী হালিমা বেগমের কাছে পাঁচ হাজার টাকা ধার চান। হালিমা বেগম টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তার গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করে।

এ ঘটনায় নিহত হালিমা বেগমের স্বামী মো. জিন্নাত আলী শেখ বাদী হয়ে ওই দিন দিঘলিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দিঘলিয়া থানার এসআই শেখ লুৎফর রহমান তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

মামলায় ২৭ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৫ জন আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। আসামি পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ রজব আলী।