আবিরকে বলাৎকারের পর গলা কেটে হত্যা, ধারণা পুলিশের

প্রকাশ: ২৫ জুলাই ২০১৯     আপডেট: ২৫ জুলাই ২০১৯      

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

নিহত আবির -সংগৃহীত ছবি

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার মাদ্রাসাছাত্র আবির হোসাইনের (১১) মরদেহ উদ্ধারের ২৪ ঘণ্টা পর বিচ্ছিন্ন মস্তক উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ ও ডুবুরি দল যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মাদ্রাসার ১০০ গজ দূরের একটি পুকুর থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে বুধবার সকালে মাদ্রাসার নিকটবর্তী ইটভাটার পাশ থেকে তার মাথাবিহীন মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আবির ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী আলী হোসেনের ছেলে এবং কয়রাডাঙ্গা নুরানি হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল।

চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. কলিমুল্লাহ জানান, বুধবার রাতেই খুলনা থেকে একটি বিশেষ ডুবুরি দল চুয়াডাঙ্গায় আসে। তাদের সহযোগিতায় জেলা পুলিশের একটি দল কয়েক ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে আবিরের মাথাটি উদ্ধার করে।

এলাকাবাসী জানান, আবির মঙ্গলবার এশার নামাজের সময় নিখোঁজ হয়। বুধবার সকালে মাদ্রাসার নিকটবর্তী আমবাগান থেকে মাথাবিহীন আবিরের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরের দিন বৃহস্পতিবার উদ্ধার হলো তার মাথা।

আলমডাঙ্গা থানার ওসি মুন্সী আসাদুজ্জামান জানান, শিশু আবিরকে বলাৎকার করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মাদ্রাসার পাঁচ শিক্ষককে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।