দামুড়হুদা সীমান্তে গরু ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশ: ২৭ আগস্ট ২০১৯     আপডেট: ২৭ আগস্ট ২০১৯      

দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি

ফাইল ছবি

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা সীমান্তে আবদুল্লাহ (৪৩) নামে এক গরু ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে ও খুঁচিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এলাকাবাসির ধারণা, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ তাকে হত্যা করেছে। তবে পুলিশ ও বিজিবির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কিছু নিশ্চিত করা হয়নি।

সোমবার রাতে ঠাকুরপুর সীমান্তের বাংলাদেশের অভ্যন্তরে দোহার মাঠের ৮৯ নম্বর মেইন পিলারের কাছে এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার সকালে নিহতের স্বজনরা ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে।

নিহত আবদুল্লাহ উপজেলার ঠাকুরপুর গ্রামের মৃত গোলাম রসুলের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাতে আবদুল্লাহসহ ৪-৫ জন ব্যবসায়ী ভারতে গরু আনতে গেলে টহলরত বিএসএফ সদস্যরা তাদের ধাওয়া করে। অন্যরা পালিয়ে আসতে পারলেও ধরা পড়েন আবদুল্লাহ। মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে বিএসএফ নিহত আবদুল্লাহর কাছে থাকা মোবাইল ফোন দিয়ে তার পরিবারের কাছে জানায় যে, তার লাশ দোহার মাঠে সীমান্তের ৮৯ নম্বর পিলারের পাশে পড়ে আছে। পরে আবদুল্লাহর পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে।

খবর পেয়ে দামুড়হুদা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আবু রাসেল এবং দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি সুকুমার বিশ্বাস নিহতের বাড়িতে যান এবং ময়না তদন্তের জন্য লাশ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে ওসি সুকুমার বিশ্বাস জানান, লাশ উদ্ধার করা হলেও হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণ জানা যায়নি। লাশের গায়ে আঘাতের একাধিক চিহ্ন রয়েছে। তাকে পিটিয়ে ও খুঁচিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক অধিনায়ক সাজ্জাদ সরোয়ার জানান, লাশ উদ্ধারের ঘটনাটি শুনেছি। তবে কে বা কারা হত্যা করেছে এ ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।