কুমিল্লায় শিশুর গলাকাটা লাশ মিলল ডোবায়

প্রকাশ: ২০ অক্টোবর ২০১৯      

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা

ছবি: গুগল

কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের চম্পকনগর এলাকার এক ডোবা থেকে এক শিশুর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত শিশু মেহেদী হাসান রিফাত (১০) চম্পকনগর গ্রামের প্রবাসী আলমগীর হোসেনের ছেলে। সে স্থানীয় নর্থ-সাউথ চাইল্ড কিন্ডারগার্টেনে তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ত।

পুলিশের ধারণা, শনিবার রাতে শিশু রিফাতকে গলাকেটে হত্যার পর লাশ ডোবার কচুরিপানার ভেতর ফেলে রাখে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় রোববার সন্ধ্যায় নিহতের চাচা জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

রিফাতের মা জেসমিন আক্তার জানান, শনিবার সন্ধ্যায় পার্শ্ববর্তী বাড়ির বিউটি আক্তার নামে এক নারীর বাসায় প্রাইভেট পড়তে গিয়েছিল রিফাত। কিন্তু পড়া শেষে সে বাড়ি না ফেরায় শিক্ষকের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে জানতে পারে- রিফাত সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়েছে। কিন্তু তার খোঁজ না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করে। এক পর্যায়ে বাড়ির পাশে পরিত্যক্ত ডোবার কচুরিপানার ভেতরে গলাকাটা ও রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে পাওয়া যায়। পরে তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, শিশুটিকে শ্বাসরোধে বা গলায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। তার গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। দ্রুত হত্যাকাণ্ডের কারণ ও কারা জড়িত তা বের সম্ভব হবে।