বিয়ে করতে গিয়ে পুলিশ দেখে বরের দৌড়

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

বগুড়া ব্যুরো

বগুড়ার নন্দীগ্রামে বিয়ে করতে গিয়ে পুলিশ দেখে বর ও বরযাত্রী দৌড়ে পালিয়ে যায়। সোমবার জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার সদর ইউনিয়নের হাটলাল গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। 

জানা গেছে, হাটলাল গ্রামের আব্দুর রউফের মেয়ে রিয়া মনি (১৪) সপ্তম শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। সম্প্রতি বাবা-মা নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলার রামানন্দ খাজুরা ইউনিয়নের বাকাইকুড়ি গ্রামের লোকমান আলীর ছেলে আলহাজ্ব উদ্দিনের (২০) সঙ্গে মনির বিয়ে ঠিক করেন। সোমবার দুপুরে ধুমধাম করে তাদের বিয়ের প্রস্তুতি চলছিল। খবর পেয়ে নন্দ্রীগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আখতার পুলিশ নিয়ে দ্রুত বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। তখন পুলিশ দেখে বরসহ বর পক্ষের লোকজন বিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাল্যবিবাহ বন্ধ করে দিয়ে মেয়ের বাবা-মার মুচলেকা গ্রহণ করেন। 

এসময় তিনি বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে ধারণা দিয়ে বলেন, বাল্যবিবাহের কারণে মেয়েদের মূল্যবান জীবন নষ্ট হয়ে যায়। তাই বাল্যবিবাহ দেয়া ঠিক নয়। বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে।