'উপাচার্যের রাজনৈতিক সংগঠনের চেয়ারম্যান হওয়ার ইচ্ছা লজ্জার'

প্রকাশ: ২৬ অক্টোবর ২০১৯      

রাবি প্রতিনিধি

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী— সমকাল

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের রাজনৈতিক সংগঠনের চেয়ারম্যান হওয়ার ইচ্ছাপোষণ লজ্জার বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ও প্রবীণ সাংবাদিক ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

শনিবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (রাবিসাস) ৫০ বছর পূর্তি উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, 'যখন একজন উপাচার্য বলেন– একটি রাজনৈতিক দলের চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য উপাচার্য পদ ছাড়তে প্রস্তুত আছেন, তখন আমাদের লজ্জিত হতে হয়। জানি না তিনি লজ্জিত হয়েছেন কি-না। তবে এটা ভেবে আমরা লজ্জিত।'

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে বেলুন উড়িয়ে ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে উৎসবের উদ্বোধন করেন ইকবাল সোবহান চৌধুরী। পরে সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের আহ্বায়ক অধ্যাপক মলয় ভৌমিকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, 'আমাদের সংস্কৃতি ক্যাসিনো নয়, মসজিদ মন্দির, প্যাগোডা আমাদের সংস্কৃতি। তাই প্রধানমন্ত্রীর বর্তমান যে অভিযান চলছে, অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে আমাদের সেই অভিযানের পক্ষে থাকতে হবে।'

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে শনিবার ক্যাম্পাসে শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়— সমকাল

তিনি বলেন, 'যখন বিশ্ববিদ্যালয়ে টর্চারসেল করে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে তখন আমাদের কলঙ্কিত হতে হয়। কিছু সাংবাদিকের অবক্ষয়ের কারণে আমরা লজ্জিত হই। তবে এখনো ভালো সাংবাদিক যেমন আছেন, তেমনি সব পেশাতেই ভালো মানুষ আছেন। আছেন বলেই আমাদের সমাজ দেশ এখনো ভালো আছে।'

ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরও বলেন, 'সাংবাদিকদের হাত হবে উন্মুক্ত। তারা কারো কাছে জবাবদিহি করবে না। তারা শুধু বিবেক এবং জাতির কাছে দায়বদ্ধ।'

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি হামিদুজ্জামান রবি। স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বুলবুল। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রাজশাহী রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর পরিচালক (উপ-সচিব) শাহ আলম চুন্নু। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্যদ্বয়সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।