আদালতে বাবাকে দেখতে যাওয়ার পথে বাসচাপায় কিশোর নিহত

প্রকাশ: ২৭ অক্টোবর ২০১৯      

কিশোরগঞ্জ অফিস

প্রতীকী ছবি

কিশোরগঞ্জের আদালতে খাবার নিয়ে বাইসাইকেলযোগে বাবাকে দেখতে যাওয়ার পথে বাসচাপায় মুন্না (১৩) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকাল ১০টার দিকে কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ আঞ্চলিক মহাসড়কে কিশোরগঞ্জ শহরতলীর বড়পুল এলাকায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত মুন্না জেলার মিঠামইন উপজেলার ঢাকী ইউনিয়নের বড়কান্দা গ্রামের নাজিম উদ্দিনের ছেলে। মা ও ভাই-বোনদের সঙ্গে সে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার লতিবাবাদ এলাকার ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতো।

জানা গেছে, মুন্নার বাবা নাজিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ইটনা থানায় অস্ত্র ও ডাকাতির দু’টি মামলাসহ বিভিন্ন থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। গত ১৬ এপ্রিল দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে ইটনা উপজেলার এলংজুড়ি ইউনিয়নের মরাগাঙ কলের কান্দা এলাকায় পুলিশের সঙ্গে ডাকাতদলের বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় মো. নাজিম উদ্দিন (৩৫) সহ চার ডাকাত আহত ও আটক হয়। এর মধ্যে নাজিম উদ্দিন পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়। চিকিৎসা শেষে গত ৪ জুন থেকে নাজিম উদ্দিন কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে রয়েছে।

রোববার সকালে একটি মামলার ধার্য তারিখে নাজিম উদ্দিনকে কিশোরগঞ্জ আদালতে নেওয়া হয়। আদালতের হাজতখানায় বাবাকে দেখতে ও বাবার জন্য খাবার নিয়ে যেতে মুন্না বাইসাইকেলযোগে লতিবাবাদ এলাকার ভাড়াবাড়ি থেকে আদালতের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথে সকাল ১০টার দিকে একটি যাত্রীবাহী বাস বাইসাইকেলটিকে চাপা দিলে মুন্না গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মুন্নাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাসচাপায় ছেলের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে আদালতের হাজতখানায় নাজিম উদ্দিন কান্নায় ভেঙে পড়ে। হাজিরা শেষে বিকালে তাকে পুনরায় কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

কটিয়াদী হাইওয়ে পুলিশের এসআই জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর চালক পালিয়ে গেলেও বাসটিকে আটক করা হয়েছে।