ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, শিক্ষার্থীদের মানবিক মূল্যবোধ ও নৈতিক শিক্ষায় দীক্ষিত করতে হবে। এ লক্ষ্যে রোটারিয়ানদের এগিয়ে আসতে হবে। রোববার রাতে বিয়ানীবাজার পৌর শহরের একটি অভিজাত রেস্তোরাঁয় রোটারি ক্লাব অব বিয়ানীবাজারের ১২তম অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ ম স আরেফিন সিদ্দিক এ কথা বলেন।

আরেফিন সিদ্দিক বলেন, মেধাবী আবরারকে যারা হত্যা করেছে, তারাও মেধাবী। তবে আগামীতে শিক্ষার্থীদের মেধার মূল্যায়নে নৈতিক শিক্ষায় তারা কতটুকু মেধাবী সেটিও মূল্যায়ন করা প্রয়োজন। সামাজিক, রাজনৈতিক কিংবা সাংস্কৃতিক অঙ্গনে দেশের মানুষ ভিন্ন অবস্থানে থাকতে পারে। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের চেতনা থেকে আমাদের দূরে সরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কারণ বঙ্গবন্ধুর ডাকে এদেশ স্বাধীন করতে ত্রিশ লাখ মানুষের রক্ত ঝরেছে। দেশের এমন কোনো জায়গা নেই যেখানে শহীদের রক্ত নেই। এদেশের মাটি জাতির পিতাসহ জাতীয় চার নেতার রক্তে রঞ্জিত হয়েছে।

দেশে দেশে মানবিকতা হ্রাস পাচ্ছে উল্লেখ করে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি বলেন, মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত না হলে একটি সমাজ কিংবা রাষ্ট্র প্রকৃত অর্থে মানবিক হয় না। রোটারিয়ানদের আগামীর লক্ষ্য হওয়া উচিত মানুষের মধ্যে মানবিক বোধ জাগ্রত করা। তিনি বিয়ানীবাজারের সন্তান বিশ্বখ্যাত রঘুনাথ শিরোমনি, মহেশ্বর ন্যায় লংকার, শ্রীভাষ পণ্ডিৎ ও ড. জিসি দেবকে আগামী প্রজন্মের কাছে স্মরণীয় করতে যথাযথ উদ্যোগ নিতে দায়িত্বশীলদের প্রতি আহ্বান জানান।

রোটারি ক্লাব অব বিয়ানীবাজারের প্রেসিডেন্ট কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে অভিষেক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রোটারি জেলা গভর্নর লে. কর্নেল (অব.) অধ্যক্ষ এম আতাউর রহমান পীর, পিডিজি মঞ্জুরুল হক, বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ দ্বারকেশ চন্দ্র নাথ, পৌর মেয়র আব্দুস শুকুর, পিডিজি শহীদ আহমদ চৌধুরী, আইপিডিজি বিন নাসী মহসী, ডিজিই ডা. বেলাল আহমদ, ডিজিএন আবু ফয়েজ খান চৌধুরী, অ্যাসিট্যান্ট গভর্নর ও সিলেট সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ তৌফিক বক্স লিপন প্রমুখ। 

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রোটারি ক্লাব অব বিয়ানীবাজারের প্রোগ্রাম চেয়ারম্যান সালেহ আহমদ।