শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিককে গলা কেটে হত্যা

প্রকাশ: ০৮ নভেম্বর ২০১৯      

গাজীপুর প্রতিনিধি

চাকরির প্রথম মাসের বেতন পেয়েই তা বাড়িতে পাঠানোর কথা ছিল। বেতনও পেয়েছিলেন, কিন্তু সে টাকা আর বাড়িতে পাঠানো হলো না পোশাক কারখানা শ্রমিক আরিফুল ইসলাম আসিফের। কারখানা থেকে ফেরার পথেই দুর্বৃত্তদের কবলে পড়েন আসিফ। নৃশংসভাবে হত্যার পর কলাবাগানের একটি কূপের ভেতর তার লাশ গুম করে রাখে দুর্বৃত্তরা। 

শুক্রবার সকালে শ্রীপুর পৌরসভার বহেরারচালা এলাকা থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।জানা যায়, কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার রামদাসপুর ধনীরাম গ্রামের আতাউর রহমানের ছেলে আসিফ দুই মাস আগে বহেরারচালা এলাকায় তার বন্ধু মেহেদীর কাছে আসেন। পাশের কড়ইতলা এলাকার মিতালী গ্রুপের কেএসএস নিট কম্পোজিট কারখানায় নিটিং হেলপার পদে চাকরি নেন। বৃহস্পতিবার তাকে প্রথম মাসের বেতন দেয় কারখানা কর্তৃপক্ষ। বেতনের টাকা নিয়ে বহেরারচালার ভাড়া বাসায় ফিরছিলেন আসিফ। এ সময় দুর্বৃত্তদের কবলে পড়েন তিনি। 

শুক্রবার সকালে স্থানীয় একটি কলাবাগানের শ্রমিকরা কাজ করতে এসে বাগানের পাশে রক্ত দেখতে পান। বাগানে পানি দেওয়ার জন্য খনন করা কূপে কলাপাতার নিচে লাশ দেখতে পেয়ে তারা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ আসিফের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি ছুরিও উদ্ধার করা হয়।

শ্রীপুর থানার এসআই শহিদুল ইসলাম মোল্লাহ বলেন, বেতনের টাকা ছিনিয়ে নিয়ে দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যার পর লাশ গুম করে রাখে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। 

শ্রীপুর থানার ওসি মো. লিয়াকত আলী বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।