ট্রেন দুর্ঘটনায় আহতদের দেখতে কুমিল্লায় রেলমন্ত্রী

প্রকাশ: ১২ নভেম্বর ২০১৯      

বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

আহত এক যাত্রীর সঙ্গে কথা বলছেন রেলমন্ত্রী -সমকাল

ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত হয়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন যাত্রীদের দেখতে গিয়েছেন রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

মঙ্গবার বিকেল সোয়া ৩টায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে যান তিনি। এ সময় রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশনের আউটার সিগনারে মঙ্গলবার ভোরে চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর উদয়ন এক্সপ্রেসের সঙ্গে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর তূর্ণা নীশিথার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে কমপক্ষে ১৬ জন নিহতসহ আহত হয়েছেন শতাধিক। দুর্ঘটনার পর ভোর ৫.৪০ টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত ৬টি অ্যাম্বুলেন্সে আহত ১৩ যাত্রীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ১০ জনকে ঢাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। বাকি ৩জন হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বিকেল ৩টায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতদের দেখতে আসেন। এসময় তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পেয়ে আমি দ্রুত দুর্ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। দুর্ঘটনার পর প্রাথমিকভাবে তুর্ণা নীশিথার চালক, সহকারী চালককে সাসপেন্ড করা হয়েছে। এছাড়া ৫টি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে। 

কমিটি আগামী ৩ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিবে বলেও তিনি নিশ্চিত করেন। 

এদিকে দুর্ঘটনায় নিহত ১৬ জনের পরিবারকে রেলওয়ের পক্ষ থেকে জনপ্রতি ১ লাখ টাকা ও আহতদের ১০ হাজার টাকার ক্ষতিপূরণসহ প্রতিটি লাশ দাফনে ২৫ হাজার টাকা এবং আহতদের চিকিৎসার পুরো ব্যয়ভার বহনের কথা জানান মন্ত্রী।