আশুগঞ্জ কারখানা থেকে সার সরবরাহ বন্ধ

প্রকাশ: ২০ নভেম্বর ২০১৯     আপডেট: ২০ নভেম্বর ২০১৯   

আশুগঞ্জ (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি

আশুগঞ্জ থেকে ছেড়ে যাচ্ছে না কোনো ট্রাক-সমকাল

আশুগঞ্জ থেকে ছেড়ে যাচ্ছে না কোনো ট্রাক-সমকাল

নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংশোধনসহ ৯ দফা দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জেও অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট পালন করছে জেলা ট্রাক চালক ও শ্রমিক ইউনিয়ন। এর ফলে আশুগঞ্জ সার কারখানা থেকে দেশের সাতটি জেলায় সার সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বুধবার সকাল থেকে এ ধর্মঘট পালিত হচ্ছে। শ্রমিকদের এ ধর্মঘটকে সমর্থন জানিয়েছে ট্রাক মালিকরাও। নতুন সড়ক আইন সংশোধন না হওয়া পর্যন্ত বা কেন্দ্রীয় কমিটির পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত এ ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় শ্রমিক নেতারা। এ ধর্মঘটের ফলে আশুগঞ্জ সার কারখানা থেকে দেশের সাতটি জেলায় সার সরবরাহ বন্ধ রয়েছে এবং আশুগঞ্জ নদীবন্দর থেকে সব ধরনের পণ্য পরিবহন বন্ধ রয়েছে। 

সংশ্লিষ্টদের দাবি, পরিবহন শ্রমিকদের এ ধর্মঘট অব্যাহত বা দীর্ঘায়িত হলে ইরি-বোরো মৌসুমে সার সংকটসহ বন্দর সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বেন। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ট্রাক চালক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. ইদন মিয়া মিন্টু ও সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল হক সরকার বলেন, নতুন সড়ক আইন প্রয়োগের ফলে শ্রমিকদের রাস্তায় গাড়ি চালানো সম্ভব হচ্ছে না। এ আইনে ওভারলোডিংসহ বিভিন্ন ধারায় যে পরিমাণ জেল-জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে তা কোন শ্রমিকের পক্ষে মানা সম্ভব নয়। শ্রমিকেরা ওভারলোডিং করতে চায় না, তারা ইচ্ছা কওে কোন দুর্ঘটনা ঘটায় না। 

জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি মো. নাসির উদ্দিন বলেন, শ্রমিক ছাড়া মালিক অচল। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুসায়ী তারা শ্রমিকদের ধর্মঘটকে সর্মথন জানিয়েছেন। 

জেলা সার সমিতির সভাপতি হাজী জালাল উদ্দিন জানান, ট্রাক শ্রমিকদের ধর্মঘটের ফলে বুধবার সকাল থেকে কারখানা হতে সার উত্তোলন ও সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে সারের মৌসুম। এ ধর্মঘট অব্যাহত থাকলে দেশে সারের সংকট দেখা দিতে পারে।