বোয়ালখালীতে আগুনে যুবকের মৃত্যু

প্রকাশ: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯     আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

পুড়ে যাওয়া বসতঘর- সমকাল

পুড়ে যাওয়া বসতঘর- সমকাল

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে নিজ বসতঘরে লাগা আগুনে ঘুমন্ত অবস্থায় দগ্ধ হয়ে নুরুল আজিম (৩০) নামে এক যুবক মারা গেছেন।

শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার পশ্চিম গোমদী কোরবান আলী সওদাগর বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। নিহত নুরুল আজিম ওই এলাকার মো. হোসেনের ছেলে। তিনি স্থানীয় একটি বেকারিতে চাকরি করতেন। তার ৪ বছর বয়সী এক ছেলে রয়েছে।

নিহত আজিমের মা জাহানারা বেগম জানান, রাতের খাবার শেষে যার যার ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন সবাই। মধ্যরাতে হঠাৎ ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়লে আজিমকে অনেক ডাকাডাকি করেও জাগাতে না পেরে তার স্ত্রী ছেলেকে নিয়ে বের হয়ে পড়েন।

বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে জানিয়েছেন বোয়ালখালী ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার কীরীটী রঞ্জন বড়ুয়া।

তিনি জানান, আগুনে আজিম ও শাহ আলম মাঝির বসতঘর পুড়ে গেছে। আগুনে দেড় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ও নুরুল আজিম নামে একজন মারা গেছেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুইটি গাড়ি প্রায় ১ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

বোয়ালখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুহম্মদ হেলাল উদ্দীন ফারুকী জানান, পাশাপাশি দু’টি ঘরের একটি বাঁশের বেড়া ও টিনের ছাউনি দিয়ে তৈরি। সেখানে নুরুল আলম ও নুরুল আজিম নামে দুই ভাই পরিবার নিয়ে বসবাস করেন। তাদের আরেক প্রতিবেশী শাহ আলমের নির্মাণাধীন পাকা ঘর। রাতে লাগা আগুনে এই দুটি ঘর পুড়ে গেছে। বোয়ালখালী ফায়ার স্টেশনের অগ্নিনির্বাপক দলের কর্মীরা এসে রাত দেড়টায় আগুন নেভান। পরে ঘরের ভেতরে ফায়ার কর্মীদের তল্লাশিতে নুরুল আজিমের মরদেহ পাওয়া যায়।

পুলিশ পরিদর্শক হেলাল উদ্দিন বলেন, নরুল আজিমের স্ত্রী ও চার বছরের সন্তান নিরাপদে বের হতে পেরেছেন। তবে নুরুল আজিম পুড়ে কয়লা হয়ে গেছেন। অগ্নিকাণ্ডের সময় যে যার মতো বেরিয়ে গেলেও নুরুল আজিম বের হতে পারেননি।