ফুলবাড়ীতে মন্দিরে অগ্নিসংযোগ, গ্রেপ্তার ৬

প্রকাশ: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯      

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সংখ্যালঘু হিন্দু বাড়িতে হামলা, মন্দিরে অগ্নিসংযোগ ও প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ফুলবাড়ী থানায় মামলা হয়েছে। ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাছুমা আরেফিন এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেনহাজুল আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এদিকে যেকোনো ধরনের বিশৃঙ্খল এড়াতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এলাকার হারুন মিয়া ও নিবারন চন্দ্র জানান, ৫২ শতক জমির মালিকানা নিয়ে উপজেলা সদরের কবিরমামুদ গ্রামের হরিকান্ত রায়ের সঙ্গে একই গ্রামের দুলাল হোসেনের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। এর জেরে  শনিবার সকালে ১০-১২ জন নারী-পুরুষ একত্র হয়ে হরিকান্ত রায়ের বসত বাড়িতে হামলা চালায়। এরই মধ্যে কে বা কারা বাড়ির উঠানের দুর্গামন্দিরে অগ্নিসংযোগ করে। খবর পেয়ে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ গিয়ে হামলাকারী সন্দেহে ছয়জনকে আটক করে থানায় নেয়। তারা হলেন- মোস্তফা মিয়া, ইসমাইল হোসেন, মুকুল মিয়া, আবদুস সোবাহান, আবদুর রশিদ ও শামছুল হক। পরে হরিকান্ত রায়ের বড়ভাই সুশীল চন্দ্র রায় বাদী হয়ে ২৪ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

হরিকান্ত রায় বলেন, 'আসামিরা আমার বাড়িতে হামলা চালায় এবং মন্দিরে আগুন দিয়ে প্রতিমা ভাংচুর করে। আমি এ ঘটনার উপযুক্ত বিচার চাই।'

গ্রেপ্তার মোস্তফা মিয়া ও মুকুল মিয়া বলেন, হিন্দুবাড়িতে হামলা বা মন্দিরে আগুন দেওয়ার বিষয়ে তারা কিছুই জানেন না। ঘটনাটি সাজানো। তারা নিজেরাই মন্দিরে আগুন লাগিয়ে তাদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন।

ইউএনও মাছুমা আরেফিন জানান, ঘটনাটি সাম্প্রদায়িক নয়, জমিজমা সংক্রান্ত। পুলিশ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে।

ফুলবাড়ী থানার ওসি খন্দকার ফুয়াদ রুহানী জানান, প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গ্রেপ্তারকৃতদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।