সুন্দরবনে মাছ ধরতে গিয়ে ভাগ্য খুলে গেল জেলে মঞ্জুর

প্রকাশ: ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯     আপডেট: ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯   

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

মঞ্জু গাজীর জালে ধরা পড়া মেইদ মাছ -সমকাল

মঞ্জু গাজীর জালে ধরা পড়া মেইদ মাছ -সমকাল

সুন্দরবনে মাছ শিকারে গিয়ে ভাগ্য খুলে গেছে মঞ্জু গাজী নামে এক জেলের। তার এক জালেই ধরা পেড়েছে ১২১টি মূল্যবান মেইদ মাছ। পরে সেগুলো ৫ লাখ ৭০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন তিনি। মূল্যবান এতগুলো মাছ একসঙ্গে ধরা পড়াকে বিস্ময়কর বলছেন অন্য জেলেরা।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের হরিনগর গ্রামের ইমান আলী গাজীর ছেলে মঞ্জু গাজী বন বিভাগের অনুমতি নিয়ে কয়েকদিন আগে মাছ ধরতে সুন্দরবনে প্রবেশ করেন। বনের নদীতে দুটি ফাঁস জাল ফেলেন তিনি। এতেই ধরা পড়ে ১২১টি মূল্যবান মেইদ মাছ।

মঞ্জু গাজী জানান, দুইটি ফাঁস জালের একটিতে ১২১ টি মেইদ মাছ ধরা পড়ে। রোববার সন্ধ্যায় হরিনগর বাজারে সেগুলো বিক্রি করেছি। পাইকারি এক ক্রেতা ৫ লাখ ৭০ হাজার টাকায় মাছগুলো কিনেছেন।

তিনি বলেন, অন্য জালেও অনেকগুলো মেইদ মাছ আটকা পড়ে, কিন্তু জালটি আর পাইনি। ধারণা করছি, বেশি মাছ একত্রে আটকা পড়ায় জালটি টেনে নিয়ে গেছে। এই মাছ খুব বেশি পাওয়া যায় না।
মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম মোড়ল বলেন, সুন্দরবনের চুনকুড়ি নদীতে দামি মেইদ মাছ ধরা পড়ছে। প্রতিদিনই জেলেরা ২-৩ লাখ টাকার মাছ একসঙ্গে বিক্রি করছেন। অনেককে আবার মাছ ধরতে গিয়ে খালি হাতেও ফিরতে হচ্ছে।