বিএনপি-জামায়াত করলে কেউ মুক্তিযোদ্ধা থাকে না: মুনতাসীর মামুন

প্রকাশ: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯      

 দিনাজপুর প্রতিনিধি

প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ ড. মুনতাসীর মামুন বলেছেন, বাংলাদেশ একটি অদ্ভুত দেশ। যেখানে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি আছে। স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিও আছে। পৃথিবীর কোথাও এরকম নেই। কারণ কোনো দেশ স্বাধীন হয়ে গেলে সেখানে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি আর থাকে না।

তিনি বলেন, বিএনপি করলে বা জামায়াত করলে কেউ মুক্তিযোদ্ধা থাকে না। যদি আপনি বলেন আমি মুক্তিযোদ্ধা ছিলাম; কিন্তু আপনি মুক্তিযোদ্ধা থাকলে তো মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের দল ছাড়া অন্য দল করতে পারেন না। তাহলে মুক্তিযোদ্ধা থাকলেন কোথায়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দিনাজপুরের বীরগঞ্জের সাতোর ইউনিয়নের চৌপুকুরিয়া মাঝাপাড়া এবং নিজপাড়া ইউনিয়নের দামাইক্ষেত্র গণহত্যার স্মৃতিফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

মুনতাসীর মামুন বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় দেশের দুই লাখ নারী ধর্ষিত হয়েছেন বলা হলেও আসলে সে সময় ধর্ষণের শিকার হয়েছেন পাঁচ লাখের বেশি। আর আমাদের শহীদের সংখ্যা ৩০ লাখেরও ওপরে। গবেষণায় এমনই জানা যায়।

তিনি বলেন, আমরা যখন স্বাধীন হই, তখন বলা হতো নারী ধর্ষিত হয়েছে আট থেকে ১০ লাখ। এটি আমি রেডিওতে শুনেছি। দিনে দিনে এটি দুই লাখে নেমে আসে। অথচ গবেষণায় এসেছে, নারী ধর্ষিত হয়েছে পাঁচ লাখের ওপরে, হাইকোর্টের রায়ে এ সংখ্যাকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, মুনতাসীর মামুন বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী সামনে রেখে দিনাজপুরে বাংলাদেশ ইতিহাস সম্মিলনীর ১০০ দিনের কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন। বুধবার দিনাজপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট অডিটোরিয়ামে কর্মসূচির ঘোষণাকালে মুনতাসীর মামুন জানান, দিনাজপুরে ১০০ দিনে ১০০টি ভেন্যুতে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুবিষয়ক আলোচনা হবে।

অনুষ্ঠানে গুণীজন সম্মাননা জানানো হয়। এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ইতিহাস সম্মিলনী দিনাজপুরের সভাপতি মোজাম্মেল হক, সাধারণ সম্পাদক ছায়েদ আলী, গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক গবেষণা কেন্দ্রের কোর্স পরিচালক অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান প্রমুখ।