ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

বিএনপির কর্মীসভায় হামলা ও গুলি

উপজেলা চেয়ারম্যানসহ আ.লীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

উপজেলা চেয়ারম্যানসহ আ.লীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

হামলায় চেয়ার ভাঙচুর করা হয়। ফাইল ছবি

কুমিল্লা প্রতিনিধি

প্রকাশ: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ১২:২৩ | আপডেট: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ১২:২৩

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউনিয়ন বিএনপির কর্মীসভায় হামলা, ভাঙচুর ও গুলির ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। দুটি মামলায় কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও লালমাই উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল হাসান শাহীনকে আসামি করা হয়েছে। একটি মামলায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের ৫০ এবং অপর মামলায় ১৬ নেতাকর্মী নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া উভয় মামলায় অজ্ঞাত আরও ৭৫ জনকে আসামি করা হয়। বৃহস্পতিবার জেলা আদালতে মামলা দুটি করা হয়। 

আদালত সূত্রে জানা যায়, বেলঘর উত্তর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম খন্দকার বাদী হয়ে আদালতে মামলা করেছেন। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, ২৬ আগস্ট তার বাড়িতে কর্মীসভার আয়োজন করা হয়। কিন্তু সভা শুরুর আগে উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বে হামলা, গুলি ও লুটপাট চালান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এতে ২ জন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ১৫ জন আহত হন। 

বাদী পক্ষের আইনজীবী আব্দুল্লাহ আল হাসান বলেন, মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৫০ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত আরও ২০-২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লার ৯ নম্বর আমলী আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শারমিন রীমা অভিযোগটি তদন্তের জন্য কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশকে (ডিবি) নির্দেশ দিয়েছেন। 

অপর দিকে একই ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত যুবদল কর্মী মনির হোসেন দ্রুত বিচার আদালতে আরেকটি মামলা করেন। এ মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল হাসান শাহীন, আওয়ামী লীগ নেতা আবুল খায়ের মজুমদার, শাহ আলম ও আয়াত উল্লাহসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত আরও ৫০-৬০ জনকে আসামি করা হয়েছে। 

বাদী পক্ষের আইনজীবী মুহম্মদ আখতার হোসেন বলেন, দ্রুত বিচার আদালতের বিচারক বেগম নিশাত জাহান চৌধুরী অভিযোগ তদন্তের জন্য জেলা গোয়েন্দা পুলিশকে (ডিবি) নির্দেশ দিয়েছেন। 

মামলার বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল হাসান শাহীন সমকালকে জানান, বিএনপির অভিযোগ মিথ্যা, সেই দিন আওয়ামী লীগের মিছিলে বিএনপির নেতাকর্মীরা হামলা চালান। এতে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের ১০-১২ জন আহত হন। এ ঘটনায় বিএনপির ২৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।


আরও পড়ুন

×