খুলনার বটিয়াঘাটায় রিপন রায় (১৯) নামের এক যুবককে হত্যার দায়ে ৬ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় দুই আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। 

সোমবার দুপুরে খুলনার জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. সাইফুজ্জামান হিরো এ রায় ঘোষণা করেন। 

রিপন বটিয়াঘাটা উপজেলার গড়িয়াডাঙ্গা গ্রামের রামপ্রসাদ রায়ের ছেলে। তিনি বৃত্তি খলশিবুনিয়া গ্রামে সিডির দোকানের ব্যবসা করতেন। 

সাজাপ্রাপ্তরা হচ্ছেন-বটিয়াঘাটা উপজেলার বৃত্তি শলুয়া এলাকার মনিরুজ্জামান ঘরামী, পারশেমারি গ্রামের হুমায়ুন সরদার, গাওঘরা গ্রামের জাহাঙ্গীর সরদার, এনামুল শেখ, কাদের শেখ ও পিন্টু শেখ। খালাসপ্রাপ্ত দুইজন হলেন-হুমায়ুন কবীর বাবু ও হান্নান মল্লিক। 

আদালতের উচ্চমান বেঞ্চ সহকারী মো. সায়েদুল হক শাহীন জানান, ২০০৭ সালের ১ এপ্রিল রাতে বটিয়াঘাটা উপজেলার গড়িয়াডাঙ্গার রিপন তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। আসামিরা পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর পালিয়ে যায়। পরদিন সকালে এলাকাবাসী রাস্তার পাশে রিপনের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। বটিয়াঘাটা থানা পুলিশ রিপনের লাশ উদ্ধার করে।  

এ ঘটনায় ২ এপ্রিল রিপনের বাবা বাদী হয়ে বটিয়াঘাটা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

২০১০ সালের ২০ জুলাই সিআইডির উপ-পরিদর্শক (এসআই) খান মাহবুবুর রহমান আটজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।