বগুড়া-১ আসনের সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নানকে তার জন্মভূমি সারিয়াকান্দি উপজেলা সদরে দাফন করা হয়েছে। 

সোমবার বিকেলে দাফনের আগে তার নির্বাচনী এলাকাধীন দুই উপজেলা সারিয়াকান্দি ও সোনাতলায় পৃথক দুটি জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। উভয় জানাজায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন। 

বগুড়ায় প্রথম জানাজা হয় সোমবার বাদ যোহর সোনাতলা উপজেলা সদরে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে। সেখানে জানাজার আগে তাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। পরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে তার কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। 

সোনাতলা এবং সারিয়াকান্দিতে অনুষ্ঠিত জানাজায় কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া, বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার নজরুল ইসলাম খান, বগুড়া-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা কাজী রফিকুল ইসলাম, বগুড়া-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের কেন্দ্রীয় নেতা রেজাউল করিম তানসেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন শফিক, বগুড়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মকবুল হোসেন, বগুড়ার জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের দায়িত্বে থাকা পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মোজাম্মেল হক লালু, মরহুম আব্দুল মান্নানের ছেলে সাখাওয়াত হোসেন সজল, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহন, আসাদুর রহমান দুলু, সোনাতলা উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আহসানুল তৈয়ব জাকির, সারিয়াকান্দি উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি কাজী এরফানুর রহমান রেন্টুসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীসহ কয়েক হাজার মানুষ অংশ নেন।

সংসদ সদস্য ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি আব্দুল মান্নান চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৮ জানুয়ারি সকালে ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। 

দুই সন্তানের মধ্যে মেয়ে মাহিরা মান্নান বিদেশে অবস্থান করায় আব্দুল মান্নানের মরদেহ ওইদিন বারডেমের হিমঘরে রাখা হয়। সোমবার সকালে ঢাকায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় জানাজা নামাজ শেষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টারযোগে তার মরদেহ বগুড়ায় পাঠানো হয়।  

একটানা প্রায় ১২ বছর সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্বপালনকারী আব্দুল মান্নানের লাশ বহনকারী হেলিকপ্টার দুপুর ১টার দিকে তার নির্বাচনী এলাকা বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা সদরে সরকারি নাজির আকতার কলেজ মাঠে এসে পৌঁছে। এরপর অ্যাম্বুলেন্সে করে তার লাশ সোনাতলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে নেওয়া হয়। বাদ যোহর জানাজার তাকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। 

সেখানে জানাজা শেষে আব্দুল মান্নানের মরদেহ তার নিজ জন্মভূমি সারিয়াকান্দি উপজেলা সদরের ডিগ্রী কলেজ মাঠে নেওয়া হয়। সেখানে বাদ আসর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে ওই কলেজ মাঠের পশ্চিমে মডেল মসজিদের পাশে তাকে দাফন করা হয়।