গরু আনতে গিয়ে গুলিতে মরলে দায় সরকার নেবে না: খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ২৫ জানুয়ারি ২০২০     আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২০   

রাজশাহী ব্যুরো

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

অবৈধভাবে ভারত থেকে গরু আনতে গিয়ে কেউ বিএসএফের গুলিতে মারা গেলে তার দায় সরকার নেবে না বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

নওগাঁর সীমান্তে গরু পাচার করতে গিয়ে বৃহস্পতিবার তিন বাংলাদেশির প্রাণহানির ঘটনার প্রসঙ্গ ধরে তিনি বলেন, সীমান্তে গরু পাচার করতে কোনো বিট খোলার অনুমোদন দেওয়া হয়নি। আর তাই কাঁটাতারের বেড়া কেটে কেউ যদি ভারতের গরু আনতে যায় আর গুলি খেয়ে মরে, তার দায় সরকার নেবে না। লাশ যদি ময়নাতদন্ত করে তারা ফেরত দেয়, তবেই তা আনা হবে। নইলে লাশ ফেরত আনারও কোনো উদ্যোগ সরকার নেবে না।

শনিবার দুপুরে রাজশাহীর পবা উপজেলার দামকুড়াহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের হীরকজয়ন্তী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী।

চালের দাম বাড়ার প্রসঙ্গে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, সরু চাল যেটাকে মিনিকেট-নাজিরশাইল বলে, সেই ধান শুধুমাত্র এপ্রিলে পাওয়া যায়। তাই সারাবছর ওই চালের সরবরাহ হয় না। আর মোটা চালের দাম সরকারি দরের চেয়ে অনেক কম আছে। অতএব চালের দাম বাড়েনি। যেটা বেড়েছে এটা নিয়ে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই।

হীরকজয়ন্তী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। ছোটবেলা থেকেই শিক্ষার্থীদের মধ্যে দেশপ্রেম গড়ে তুলতে হবে। এ ব্যাপারে শিক্ষক ও অভিভাবকদের যথাযথ ভূমিকা রাখতে হবে।

ফেসবুক ও ইউটিউবের কারণে যুবকদের নৈতিক অবক্ষয় ঘটছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। খাদ্যমন্ত্রী বলেন, এগুলো ব্যবহারে শিক্ষার্থীদের সতর্ক থাকতে হবে। অভিভাবকদেরও এ ব্যাপারে নজরদারি থাকতে হবে।

দামকুড়াহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের গৌরবের ৭৩ বছরে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মনসুর রহমান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহাদাত হোসেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশনের সাবেক অতিরিক্ত মহাব্যবস্থাপক আবদুল লতিফ। স্বাগত বক্তব্য দেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক ফেরদৌস আলী।