৬তলায় উঠে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা, ৯৯৯-এ ফোনে বাঁচল প্রাণ

প্রকাশ: ২৮ জানুয়ারি ২০২০     আপডেট: ২৮ জানুয়ারি ২০২০   

বিশেষ প্রতিনিধি

ছয়তলা বাড়ির ছাদে উঠে লাফ দিতে যায় যুবক- সমকাল

ছয়তলা বাড়ির ছাদে উঠে লাফ দিতে যায় যুবক- সমকাল

সাভারের রাজাশনের পলু মার্কেট এলাকায় প্রতিদিনের মতোই ছিল কর্মব্যস্ত মানুষের চলাচল। ব্যস্ত সড়কে চলতে চলতে হঠাৎ কয়েকজনের চোখ পড়ল পাশের একটি ছয়তলা ভবনের ছাদে। দেখা গেল এক যুবক ছাদের কার্নিশে দাঁড়িয়ে লাফ দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

দেরি না করে সচেতন পথচারীরা ফোন করেন ৯৯৯-এ। আর তাতেই রক্ষা পেল যুবকের প্রাণ। মঙ্গলবার বিকেলে ঘটে এ ঘটনা।

আত্মহত্যার চেষ্টাকারী যুবকের নাম হবু মিয়া। তার গ্রামের বাড়ি রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার আলাদীপাড়ায়। তিনি অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি সেবা উবারের গাড়ি চালান এবং সাভারে শ্বশুরবাড়িতে থাকেন বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ছয়তলা বাড়ির ছাদে উঠে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করতে যায় ওই যুবক। এ সময় তারা ৯৯৯-এ কল করে পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করলে পুলিশ এসে বিশেষ কৌশলে ওই যুবককে আত্মহত্যার হাত থেকে রক্ষা করে।

পুলিশ সদর দ্প্তরের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা সমকালকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বিকেলে ছাদের কার্নিশে ওই যুবককে দেখতে পেয়ে প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশের জরুরি সেবার নম্বর ৯৯৯-এ কল করেন। বিষয়টি সাভার থানা পুলিশকে অবহিত করা হলে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ গিয়ে ঘটনার সত্যতা পায়।

উদ্ধারের পর পুলিশের সঙ্গে  হবু মিয়া- সমকাল

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ সদস্যরা দু’টি দলে বিভক্ত হয়ে যায়। একটি দল হবু মিয়ার সঙ্গে কথা বলে তাকে ব্যস্ত রাখেন। অন্য এক দল ছাদে উঠে তাকে উদ্ধার করতে যায়। এ সময় ছাদের গেটের দরজা ভেতর থেকে আটকানো ছিল। পরে পুলিশ বিশেষ কৌশলে দরজার পাশে দেয়ালের ইট সরিয়ে ছাদে যায় এবং হবু মিয়াকে উদ্ধার করে নামিয়ে আনে।

বিশেষ কৌশলে দেয়ালের ইট সরায় পুলিশ- সমকাল

যুবককে উদ্ধার করতে যাওয়া সাভার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নূর মোহাম্মদ খান বলেন, যুবক মানসিকভাবে পুরোপুরি সুস্থ নয়। তিনি পারিবারিক কলহের জেরে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন। পরে তাকে পরিবারের লোকের কাছে হস্তান্তর করা হলে তারা তাকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

হবু মিয়ার পরিবারের লোকরা পুলিশের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন বলে জানান এই কর্মকর্তা।