স্ত্রীর ওপর অভিমান করে স্বামীর ‘আত্মহত্যা’

প্রকাশ: ০৫ জানুয়ারি ২০২০   

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে স্ত্রীর ওপর অভিমান করে আমির আলী গাজী (৪৫) নামে এক ব্যক্তি ফাঁসিতে ঝুলি আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। 

রোববার ভোরে উপজেলার বুড়িগোয়ালিনীর নীলডুমুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। 

নিহতের ভাগ্নে আসাদুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে তার মামি মমতাজ বেগম কিছুদিন আগে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে যায়। স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনতে তার মামা আমির আলী একাধিকবার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তির শরণাপন্ন হন। তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার সন্ধ্যার পর প্রতিবেশীর বাড়িতে সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়। 

আসাদুল ইসলাম আরো জানান, বৈঠক চলাকালে তার মামি স্বামীগৃহে আসতে অস্বীকৃতি জানান এবং বিচারকদের সামনে আমির আলীকে উদ্দেশ্য করে মানহানিকর কথা বলেন। এক পর্যায়ে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই সালিশি বৈঠক শেষে রাত দশটার দিকে তার মামা বিচারকদের একজন আব্দুল হাকিমের সঙ্গে কথা বলে বাড়িতে ফিরে আসেন। পরবর্তীতে রাত দুইটার আমির আলীর মেয়ে ও পূত্রবধূ শোবার ঘরের আড়ার সঙ্গে তাকে ঝুলতে দেখেন।

মমতাজ বেগম জানান, অত্যাচার-নির্যাতনের কারণেই তিনি স্বামীর বাড়ি ছেড়েছিলেন। শনিবার রাতের বৈঠকে তিনি পুনরায় স্বামীগৃহে ফিরতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বৈঠক থেকে চলে আসেন। তাই স্বামীর মৃত্যুর বিষয়ে তিনি কোনো কিছু জানেন না।

বৈঠকে উপস্থিত আমজাদ হোসেন মোল্লা, আব্দুল হাকিম ও মুজিবুর রহমান জানান, চেষ্টা চালিয়েও দু'পক্ষের মধ্যে কোনো সমঝোতা না হওয়ায় সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয় বৈঠক। রোববার সকালে তারা আমীর আলীর আত্মহত্যার বিষয়টি জানতে পারেন। 

শ্যামনগর থানার ওসি আলহাজ্ব মো. নাজমুল হুদা বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। কেউ কোনো অভিযোগ না করলে এ ঘটনায় একটি ইউডি মামলা হবে।