হরিণাকুণ্ডুতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ

প্রকাশ: ১৫ জানুয়ারি ২০২০   

হরিণাকুণ্ডু (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা

ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে এক নার্সকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক ক্লিনিক মালিকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে ভুক্তভোগী ওই নার্স ক্লিনিক মালিকসহ দু'জনের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, উপজেলা শহরের হাসপাতাল মোড়ে অবস্থিত ভাই ভাই ক্লিনিকে সাত মাস ধরে ওই ভুক্তভোগী নার্স হিসেবে কাজ করছেন। তিন মাস ধরে ক্লিনিক মালিক আসমত আলী তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে আসছেন। প্রতিনিয়ত ধর্ষণের এক পর্যায়ে ওই নার্স গর্ভবতী হয়ে পড়েন। এ সময় তিনি ওই ক্লিনিক মালিককে বিষয়টি জানিয়ে তাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ক্লিনিক মালিক আসমত। ১৪-১৫ দিন আগে ওই নার্সকে জোরপূর্বক অবৈধ গর্ভপাত ঘটানো হয় বলেও ভুক্তভোগীর পরিবার ও মামলা সূত্রে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে স্থানীয়রা জানান, ক্লিনিক মালিক আসমত ও তার ভাই পৌর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আলতাফ হোসেন দীর্ঘদিন ধরে নানা ধরনের অবৈধ কাজের সঙ্গে জড়িত। তাদের বিরুদ্ধে অসামাজিক কার্যকলাপ ও চাঁদাবাজির ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে।

হরিণাকুণ্ডু থানার ওসি আসাদুজ্জামান সমকালকে বলেন, ধর্ষণের শিকার ওই নার্স থানায় মামলা করেছেন। তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তারপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।