পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের লতাবেকী গোড়ার খাল ও পুষ্পকাটি এলাকা হতে মুক্তিপণের দাবিতে তিন জেলেকে অপহরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।  

মঙ্গলবার রাতে বনদস্যু জিয়া বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে তাদেরকে জিম্মি করে ডাকাত সদস্যরা। 

বৃহস্পতিবার সকালে ফিরে আসা জেলেরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অপহৃত জেলেরা হলেন- শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নের নাপিতখালী গ্রামের সিদ্দিক খাঁর ছেলে এসএসসি পরীক্ষার্থী আশরাফুল আলম ও একই গ্রামের সামছুর রহমান এবং কৈখালী গ্রামের আমির হামজা। 

ফিরে আসা জেলে বাবু মোল্যা জানান, বুড়িগোয়ালীনি ষ্টেশন অফিস থেকে ১৩ জানুয়ারি মাছ শিকারের অনুমতি নিয়ে সুন্দরবনে প্রবেশের পরের দিনই পৃথক স্থান থেকে ওই জেলেরা অপহৃত হন। 

নৌ-বহরের মালিক ছমির গাজী জানান, বনদস্যুদের নির্ধারিত এজেন্টদের মাধ্যমে টাকা দিয়ে প্রবেশ পত্র সংগ্রহ না করে বনে প্রবেশ করায় জেলেদের ব্যাপক শারীরিক নির্যাতন করা হয়। তিনি আরও জানান, এক সপ্তাহের মধ্যে মুক্তিপণের টাকা পরিশোধের আল্টিমেটায় দিয়েছেন বনদস্যুরা। 

এ বিষয়ে সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক এম এ হাসান জানান, অপহৃত জেলেদের নিয়ে তাদেরকে কেউ অভিযোগ করেনি। তিনি আরও জানান, বনদস্যুদের ভয়ভীতির কারণে বেশিরভাগ সময় তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে তাদেরকে কিছু জানানো হয় না। অপহৃতদের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আলহাজ্ব নাজমুল হুদা জানান, অপহরণের বিষয়টি এখনো কেউ জানায়নি।