খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটী গ্রামে সাগর জুট মিলের শ্রমিক আশরাফুল আলীর (২২) পায়ুপথে ময়লা পরিষ্কার করার মেশিনের হাওয়া দিয়ে নির্যাতন করেছে সহকর্মীরা। বুধবার গভীর রাতের এ ঘটনায় গুরুতর আহত আশরাফুলকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আশরাফুল তেরখাদা উপজেলার মোকামপুর গ্রামের মো. রবিউল ইসলামের ছেলে।

আশরাফুলের চাচা মাসুদ শেখ জানান, নিজের কাজ শেষে বুধবার রাতে মিলের মধ্যে ঘুমিয়ে ছিলেন আশরাফুল। বুধবার গভীর রাতে নাজমুল নামের মিলের আরেক শ্রমিক ময়লা পরিষ্কার করার মেশিনের নল দিয়ে আশরাফুলের পায়ুপথে হাওয়া দেয়। এতে আশরাফুল গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে পালিয়ে যায় নাজমুল। অন্য শ্রমিকরা আশরাফুলকে উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করে।

খুমেক হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. ফারুকুজ্জামান জানান, আশরাফুল শঙ্কামুক্ত কি-না তা ২৪ ঘণ্টা অতিবাহিত না হলে বলা যাবে না। দিঘলিয়া থানার ওসি মঞ্জুর মোরশেদ জানান, খবর পেয়ে দিঘলিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আশরাফুলকে হাসপাতালে দেখতে গিয়েছিল পুলিশ। তাদের পক্ষ থেকে এখনও কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত নাজমুলকে আটকের চেষ্টা চলছে বলেও তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৫ সালের ৩ আগস্ট খুলনা মহানগরীর টুটপাড়া এলাকায় রাকিব নামের একটি শিশুকে পায়ুপথে হাওয়া দিয়ে নির্যাতন করা হয়। এতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে মারা যায় সে।