ট্রলার থেকে তরুণীর চিৎকার, মাঝনদীতে ধরা ৫ 'ধর্ষক'

প্রকাশ: ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০     আপডেট: ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

ভোলা প্রতিনিধি

গ্রেপ্তার ৫ জন -সমকাল

গ্রেপ্তার ৫ জন -সমকাল

ভোলার চরফ্যাশনের চর ফারুকীর বুড়াগৌরাঙ্গ নদীতে ট্রলারে দল বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ ৫ যুবককে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে কোস্টগার্ড। 

রোববার সকালে কোস্ট গার্ডের টহল টিম তাদের আটক এবং নির্যাতনের শিকার তরুণীকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় দক্ষিণ আইচা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। আর মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

দক্ষিণ আইচা কোস্টগার্ড কন্টিজেন্ট কমান্ডার জানান, ভোরের দিকে কোস্টগার্ডের টহল দল চর ফারুকীর বুড়াগৌরাঙ্গ নদীতে গেলে ভাসমান ট্রলার থেকে এক তরুণী বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করে। এ সময় কোস্টগার্ড সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ওই ট্রলার থেকে ২২ বছর বয়সী এক তরুণীকে উদ্ধার এবং পাঁচ যুবককে আটক করে। তারা হলো- ইউছুফ হাসান সর্দার, সোহেল রানা দিদার, ওয়াসেল আহম্মদ সিকদার, রিপন ফকির ও মোরশেদ হাওলাদার। তাদের সবার বাড়ি দক্ষিণ আইচা থানার চর মানিকা ইউনিয়নে। 

ওই তরুণীর ভাষ্য, সোহেল রানার সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। শনিবার তাকে ঘুরতে নেওয়ার নাম করে চর ককুরীমুকরীর নারিকেল বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে সোহেল। পরে ট্রলারের মধ্যে সোহেলসহ পাঁচ যুবক রাতভর পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে। ভোরে কোস্টগার্ডের সহায়তায় তিনি উদ্ধার হয়ে পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন। তার বাড়ি বড় মানিকায়। 

ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মো. কায়সার জানিয়েছেন, এ ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ জনের বিরুদ্ধে পুলিশ মামলা করেছে। তাদের আদালতে হাজির করার প্রক্রিয়া চলছে। 

দক্ষিণ আইচা থানার ওসি (তদন্ত) মিলন কুমার ঘোষ জানিয়েছেন, ভিকটিমকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।