মেয়েকে রেখে বাইরে গেলেন মা, ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করলো প্রতিবেশী

প্রকাশ: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০     আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

ভোলা প্রতিনিধি

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

ভোলা সদর উপজেলার সাহের চর গ্রামে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ১৬ বছরের এক কিশোরের বিরুদ্ধে।

রোববার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটে। পরে রাতেই ওই ছাত্রীকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

পুলিশ জানায়, রোববার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার চর সামাইয়া ইউনিয়নের সাহেব চর গ্রামের ১২ বছর বয়সী মাদরাসাছাত্রীকে ঘরে রেখে তার বাবা-মা ওষুধ আনতে পাশের বাজারে যায়। এ সুযোগে প্রতিবেশী স্কুল পড়ুয়া ওই কিশোর ঘরে ঢুকে প্রথমে ছাত্রীকে মারধর করে এবং পরে ধর্ষণ করে। এ সময় নির্যাতিতার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে অভিযুক্ত কিশোর পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে শিশুর বাবা-মা এসে রাত সাড়ে ৯টায় তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

শিশুটির পরিবার জানিয়েছে, মাদরাসায় যাওয়ার আসার সময় অভিযুক্ত কিশোর ওই ছাত্রীখে উত্যক্ত করতো। এ ঘটনা তার পরিবারকে জানালে ক্ষিপ্ত হয়ে রোববার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটায় সে।

সদর হাসপাতালে সহকারী সার্জন ডা.ইরফান চৌধুরী জানান, প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে ওই ছাত্রীকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। 

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহসিন আল ফারুক জানান, ভিকটিমের চিকিৎসার ব্যবস্থার পাশাপাশি অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।