বাগেরহাটের কচুয়ায় ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে অজ্ঞাত এক যুবক (৩৫) নিহত হয়েছেন। সোমবার ভোর রাতে বারুইখালি গ্রামের সোমেদ হাওলাদার এর বাড়িতে ডাকাতি করতে গেলে গণপিটুনির শিকার হয় ওই যুবক। সকাল সাড়ে ৬টার দিকে আহত যুবককে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য জাকির হাওলাদার বলেন, ডাকাতি করার উদ্দেশ্যে ভোর রাতে ৫-৬ জন লোক সোমেদ হাওলাদারের বাড়িতে ঢোকে। এ সময় ডাকাতরা সোমেদ হাওলাদারের বাড়ি থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা, ৩টি মোবাইল ও স্বর্নালংকার লুট করে। বাড়ির লোকজনের চিৎকারে গ্রামের লোকজন বেড়িয়ে আসে এবং ডাকাতরা লোকজনের সমাগম টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এসময় গণপিটুনিতে অজ্ঞাত এক যুবক গুরুত্বর আহত হয়। 

কচুয়া থানার ওসি (তদন্ত) সর্দার ইকবাল হোসেন বলেন, গণপিটুনিতে আহত যুবককে হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তিনি মারা যান। যুবকের পরিচয় জানতে আমরা তার ছবি দিয়ে বেতার বার্তা পাঠিয়েছি বিভিন্ন থানায়। মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।