চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীকে খুন করে মাঠে ফেলে রাখল সন্ত্রাসীরা

প্রকাশ: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কোলগাঁও ইউনিয়নে চাঁদা না পেয়ে মো. জামাল (৪৮) নামের এক ফার্ণিচার ব্যবসায়ীকে খুন করে একটি মাঠে নগ্ন ফেলে রাখল সন্ত্রাসীরা। রোববার গভীর রাতে উপজেলার কোলাগাও ইউনিয়নের নলান্ধা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ফার্নিচার লুটের ঘটনাও ঘটেছে। 

নিহত জামালের বাড়ি নরসিংদী জেলায়। এ ঘটনায় সুজন (৪০) নামের আরো একজন আহত হয়েছেন। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সোমবার বেলা ১১টার দিকে মাহবুবুল আলম (৪২) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মাহবুবুল ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের মৃত নুর আলী চেয়ারম্যানের ছোট ভাই। তার বিরুদ্ধে থানায় একটি হত্যা ও একটি চুরি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ১০ ফেব্রুয়ারি নলান্ধা গ্রামে গরীব উল্লাহ শাহ (র.) মাজারে বার্ষিক ওরশ শুরু হয়। এতে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ফার্নিচারসহ বিভিন্ন পণ্যের দোকান বসে। ওরশ উপলক্ষে নরসিংদী থেকে এসে ফার্নিচারের দোকান দেন মো. জামাল ও সুজন। রোববার রাতে এলাকার কিছু সন্ত্রাসী তাদের কাছে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না পেয়ে তাদের কাছে থাকা টাকা ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে সন্ত্রাসীরা। এ সময় ওই দুই ব্যবসায়ী চিৎকার করলে সন্ত্রাসীরা তাদের মারধরের এক পর্যায়ে জামালকে হত্যা করে লাশ মাঠের মধ্যে নগ্ন অবস্থায় ফেলে রাখে। সন্ত্রাসী চলে গেলে আহত সুজন মাজারের খাদেম ইউসুফকে বিষয়টি জানান। তিনি স্থানীয় ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন মধুকে অবগত করেন। মধু পুলিশকে জানালে পুলিশ গিয়ে একটি খালি জমি থেকে জামালের নগ্ন মৃতদেহ উদ্ধার করে ও আহত সুজনকে চট্টগ্রাম মেডিকলে কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। এ ঘটনায় নলান্ধা গ্রামের একটি দিঘীর পাড় থেকে লুট হওয়া ফার্নিচার উদ্ধার ও মাহবুবুল আলম নামের একজনকে আটক করা হয়েছে।

কোলাগাঁও ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আনোয়ার হোসেন মধু জানান, সন্ত্রাসীরা চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ী জামালকে মারধরের এক পর্যায়ে খুন করেছে। তবে এ ঘটনায় কারা জড়িত তা জানাতে পারেননি তিনি।

পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন সমকালকে জানান, গ্রেপ্তার মাহবুবুল আলমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জড়িত অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।