বোনকে বেঁধে ধর্ষণের ঘটনা দেখলেন আরেক বোন

প্রকাশ: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০     আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে দুই সন্তানের জননী এক নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। 

রোববার রাতে উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের মহিষবেড় গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। পরে সোমবার ওই নারীকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অভিযুক্ত আকবর মিয়া (৩০) একই গ্রামের আশু মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় একজন কাঠমিস্ত্রি। ঘটনার পর থেকে পলাতক তিনি। 

নির্যাতিতার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, দুই সন্তানের জননী ওই নারী স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর থেকে মায়ের কাছে বসবাস করতেন। রোববার রাতে তার মা ওরশ মাহফিলে চলে যাওয়ায় খালাতো বোনের সঙ্গে একই ঘরে ঘুমাতে যান। রাত সাড়ে ১০টার দিকে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ওই নারী ঘরের বাইরে গেলে প্রতিবেশী আকবর তার মুখ চেপে পাশের ফসলি জমিতে নিয়ে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করেন। এদিকে ওই নারীর আসতে দেরি হওয়ায় তার খালাতো বোন বাড়ির চারপাশ খুঁজতে শুরু করেন। এক পর্যায়ে পাশের জমিতে গিয়ে এই অবস্থা দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করলে আকবর পালিয়ে যান। পরে তিনি ওই নারীকে উদ্ধার করে ঘরে নিয়ে আসেন এবং প্রতিবেশীদের ডেকে তুলে ঘটনাটি জানান।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ শারমিন হক সুমি জানান, ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। ধর্ষণ নিশ্চিত হওয়ার জন্য চট্টগ্রামের ফরেনসিক বিভাগে আলামত পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

নাসিরনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজেদুর রহমান জানান, ধর্ষণের বিষয়ে আমার জানা নেই। তবে কেউ অভিযোগ নিয়ে আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।