রাতে জন্মদিনের কেক কাটা শেষে অসুস্থ কলেজছাত্রী, ভোরে মৃত্যু

প্রকাশ: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০     আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি

সেবিকা দাস

সেবিকা দাস

ফুলতলার ধোপাখোলা গ্রামের প্রভাত দাসের মেয়ে সেবিকা দাস (২১)। এ বছর খুলনা সরকারি সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিল সে। মঙ্গলবার ছিল তার জন্মদিন। এ উপলক্ষে রাতে কেক কাটা ও অন্যান্য উদযাপন শেষে অসুস্থ হয়ে পড়ে সেবিকা। ভোরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে সে। 

মেয়ের মৃত্যুশোকে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বাবা প্রভাত দাস। তাকে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রভাত দাস সমকালকে জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ধোপাখোলার গ্রামের বাড়িতে আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুদের নিয়ে ঘরোয়াভাবে সেবিকার জন্মদিন উৎযাপন করা হয়। এ উপলক্ষে কেক কাটা ও অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়। জন্মদিনের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হওয়ার পরপরই রাত ১১টার দিকে সেবিকা অসুস্থ হয়ে পড়েন। দ্রুত তাকে ধোপাখোলার গ্রাম্যচিকিৎসক আ. গনি মোল্যার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসা শেষে বাড়িতে আনা হলে ভোরে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে সেবিকা। এরপর তাকে ফুলতলা বাজারে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক মিজানুর রহমানের চেম্বারে নেওয়া হয়। সেখানে তিনি জানান যে, তার কাছে আনার আগেই সেবিকা মারা গেছে।

বুধবার সকাল ১০টায় ফুলতলার ক্যাশখোলা মহাশ্মশানে সেবিকার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।  গ্রাম্যচিকিৎসক আ. গনি মোল্যা জানান, রাতে অসুস্থ সেবিকাকে তার কাছে আনা হলে গ্যাস ও বমির ইনজেকশন পুশ করেছিলেন তিনি।