নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার পৌর সদর এলাকার একটি পুকুর পাড় থেকে ২০-২৫ দিন বয়সী এক ছেলে নবজাতককে উদ্ধার করেছে স্থানীয় লোকজন। 

মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে হাতিয়া পৌরসভার চরকৈলাস মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স এলাকার বিটুর বাড়ির পুকুর পাড় থেকে নবজাতকটি উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তাকে হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

বর্তমানে নবজাতকটি স্থানীয় সাংবাদিক ফিরোজ উদ্দিনের হেফাজতে রয়েছে। এ ঘটনাটি পুলিশ খতিয়ে দেখছে। 

পুলিশ জানায়, দুপুরে হাতিয়া পৌরসভার চর কৈলাস এলাকার মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স সংলগ্ন বিটুর বাড়ির পুকুরে গোসল করতে এসে বাচ্চার কান্নার শব্দ শুনতে পায় এক গৃহবধূ। একটু এগিয়ে গিয়ে পুকুর পাড়ে ময়লা আবর্জনার মধ্যে নবজাতকটি দেখতে পেয়ে কোলে তুলে নেন এবং বিষয়টি স্থানীয়দের জানান। স্থানীয় লোকজন নবজাতকটি উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। 

একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের হাতিয়া উপজেলা প্রতিনিধি ফিরোজ উদ্দিনের হেফাজতে থাকা শিশুটির দায়িত্ব তিনি নিজেই নিতে আগ্রহী। ফিরোজ উদ্দিন জানান, শিশুটির চিকিৎসাসেবা শেষে তার কাছে রেখে দিতে চান। এ ব্যপারে প্রশাসনের সঙ্গে তিনি কথা বলবেন। 

হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. খাদিজা জানান, শিশুটিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে সে ভালো আছে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের জানান, অজ্ঞাত কোন ব্যক্তি গোপনে পুকুর পাড়ে নবজাতকটি রেখে গেছেন। স্থানীয় সাংবাদিক ফিরোজ উদ্দিন নবজাতকের দায়িত্ব নিয়েছেন। বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সারোয়ার সালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বিষয়টি জেলা প্রশাসককে অবহিত করা হয়েছে। চিকিৎসা শেষে এ ব্যপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।