ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বিজুকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। 

বৃহস্পতিবার বিজুসহ আরো ছয়জন পুলিশের কাজে বাধা দান ও হত্যা মামলার ডকেট ছিনতাই মামলার হাজিরা দিতে আদালতে যান। পরে ঝিনাইদহ আমলী আদালতের বিচারক গৌতম কুমার তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

উল্লেখ্য, গত ৯ জানুয়ারি কালীগঞ্জে চাঞ্চল্যকর মাদ্রসা ছাত্র আলামিন হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি ও আলামত উদ্ধারে যান ঝিনাইদহ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পাঁচ কর্মকর্তা। এ সময় সাবেক মেয়র মোস্তাফির রহমান বিজু, তার ভাই মুশফিকুর রহমান ডাবলু, মোস্তাক আহম্মেদ লাভলু ও লাল্টুসহ ১০/১২ জন পিবিআই সদস্যদের ওপর হামলা ও মারপিট করে মামলার ডকেট ছিনতাই করার চেষ্টা করে। তাদের হামলায় এসআই সোহেল হোসেন, এসআই হুমায়ন, এএসআই হাফিজুর রহমান, এএসআই মো. জাফর ও এএসআই আব্দুল খালেক আহত হন। এঘটনায় বিজুকে এক নম্বর আসামি করে মামলা করে ঝিনাইদহ পিবিআই।