দিনভর ঘটা করে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন হয়েছে। কিন্তু রাত নামার সঙ্গেই শ্বাশুড়ি ও পুত্রবধূকে এসিডে ঝলসে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে। দগ্ধ অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় এক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আঠারবাড়ি ইউনিয়নের বেহেত্তরী গ্রামের প্রয়াত আমীর উদ্দিনের স্ত্রী সেলিনা বেগম (৫৫) ও তার ছেলে এমদাদুল হকের স্ত্রী লিজা বেগমকে (১৮) এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। নিজেদের খোলা রান্নাঘরে রাতের খাবার রান্না করার সময় হঠাৎ এক ব্যক্তি ছুটে গিয়ে শ্বাশুড়ি ও পুত্রবধূর শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। এসিড নিক্ষেপের পর যন্ত্রণায় চিৎকার শুরু করায় আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ঘটনার পর খোকন মিয়া (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ।

আঠারবাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. জালাল উদ্দিন বলেন, এসিডে দগ্ধ শ্বাশুড়ি ও পুত্রবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জেরে এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটনানো হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য খোকন মিয়াকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।