ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ। 

সোমবার সকাল থেকে উপজেলার সাতব্রীজ বাজার এলাকায় এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। 

এ সময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের আলমডাঙ্গা প্রধান সেচ খালের জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ৫তলা ভবনের আংশিকসহ পাঁকা ও আধাপাকা ১০৭টি অবৈধ স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। 

পানি উন্নয়ন বোর্ড ঝিনাইদহের নির্বাহী প্রকৌশলী ছরোয়ার জাহান সুজন বলেন, উচ্ছেদের পূর্বে একাধিকবার ওইসব অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়। এছাড়াও মাইকিং করে প্রচারণা চালিলেও তাদের অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলা হয়। কিন্তু ওইসব অবৈধ দখলদাররা তাদের স্থাপনা সরিয়ে না নেওয়ায় জেলা প্রশাসনের সহায়তায় বুলডোজার দিয়ে উচ্ছেদ করা হয়। 

তিনি আরো বলেন, উচ্ছেদের পূর্বে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সার্ভেয়ারের মাধ্যমে জমির সীমানা নির্ধারণ করে সেখানে লাল ক্রস চিহ্ন ও লাল পতাকা টাঙ্গিয়ে দেওয়া হয়েছিল। 

জেলা প্রশাসনের পক্ষে উচ্ছেদ অভিযান তদারকীকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও সৈয়দা নাফিস সুলতানা বলেন, দেশের নদ, নদী ও খাল-বিলে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনামতে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থাপনায় জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে এ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এ সময় এসিল্যান্ড অনিমেষ বিশ্বাস, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিন্নাতুল ইসলাম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসও জাকির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।