মিঠামইনে ২ ইতালিপ্রবাসী গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ২৩ মার্চ ২০২০     আপডেট: ২৩ মার্চ ২০২০   

কিশোরগঞ্জ অফিস ও মিঠামইন প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জের মিঠামইনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় দুই ইতালিপ্রবাসীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা দু'জন পুলিশের বিরুদ্ধে ঘুষ চাওয়ার মিথ্যা অভিযোগ এনে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছেন বলে মামলায় বলা হয়েছে। গ্রেপ্তার দু'জন হলেন- উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নের ঘাগড়া শেখেরহাটি গ্রামের হোসাইন মো. ইকবাল শেখ ও শেখ বাবু আহম্মেদ।

সোমবার মিঠামইন থানার এসআই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে ওই মামলাটি দায়ের করেন। পরে হোসাইন মো. ইকবালকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। এর আগে রোববার রাতে ইকবাল শেখকে তার বাড়ি থেকে আটক করা হয়। মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় আরও তিন-চার ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, গত ১৩ মার্চ মিঠামইন থানার এসআই নজরুল ইসলাম ও এসআই কিরণ প্রবাসী ইকবাল শেখের বাড়ি যান। এ সময় দুই পুলিশ কর্মকর্তা ইকবালের স্ত্রীকে করোনাভাইরাস সম্পর্কে অবহিত করেন এবং ইকবালকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন। এ সময় পুলিশের সঙ্গে স্থানীয় ৫ নং ওয়ার্ড সদস্য শাহ আলম উপস্থিত ছিলেন। পরে পুলিশ বাড়ি থেকে বের হয়ে বাজারে চলে আসার সময় রাস্তায় তাদের সঙ্গে হাত মেলাতে আসেন ইকবাল। এ সময় পুলিশ তাকে বাড়িতে চলে যাওয়া পরামর্শ দেন। পুলিশের সঙ্গে হাত মেলাতে না পেরে প্রবাসী ইকবাল পুলিশের বিরুদ্ধে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও অনলাইনে একটি ভিডিও আপলোড করলে তা ভাইরাল হয়।

সোমবার কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ, সহকারী পুলিশ সুপার এএসএম আজিজুল হক, ওসি জাকির রাব্বানী প্রবাসী ইকবাল শেখের বাড়িতে ঘটনা তদন্তে আসেন। পুলিশ সুপার জানান, পুলিশের বিরুদ্ধে ঘুষ চাওয়ার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি। তাই ডিজিটাল আইনে মামলা করা হয়েছে।