সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক যুবক নিহত হয়েছেন। তিনি দস্যুবাহিনী ফারুক বাহিনীর প্রধান ফারুক মোড়ল (৩৫) বলে দাবি করেছে র‌্যাব। এ সময় আহত হয়েছে দুই র‌্যাব সদস্য।

মোংলার পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের কোদাল্লিয়া খালে মঙ্গলবার ভোরে এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি দেশি পাইপগান, কয়েকটি রামদা ও বেশ কয়েক রাউন্ড তাজা গুলি। 

র‌্যাব-০৬ এর অধিনায়ক লে: কর্নেল রওশন ফিরোজ বলেন, নিহত দস্যু ফারুক খুলনার দাকোপের কলাবগি এলাকার আকবর মোড়লের ছেলে। 

তিনি জানান, পূর্ব সুন্দরবনের মোংলার চাঁদপাই রেঞ্জের কোদাল্লিয়া খালে সোমবার গভীর রাতে একদল দস্যু জেলেদের জিম্মি করে বিকাশের মাধ্যমে চাঁদা আদায় করছিল। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা ওই এলাকায় অভিযান শুরু করেন। অভিযানের এক পর্যায়ে মঙ্গলবার সকাল ৭টা ৩৫ মিনিটের সময় র‌্যাব সদস্যরা কোদাল্লিয়া খাল এলাকায় পৌঁছালে সেখানে পূর্ব থেকে অবস্থান নিয়ে থাকা দস্যুরা তাদের ওপর গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালান। উভয়পক্ষের মধ্যে প্রায় আধ ঘণ্টা ধরে চলা বন্দুকযুদ্ধের এক পর্যায়ে দস্যু ফারুক গুলিবিদ্ধ হন। এ সময় বাকী দস্যুরা বনের গহীনে পালিয়ে যান। এক পর্যায়ে স্থানীয় জেলেদের মাধ্যমে আহত দস্যুর নাম পরিচয় জানা যায়। দুপুরে গুলিবিদ্ধ ওই দস্যুকে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। 

নিহতের লাশ ও উদ্ধার হওয়া অস্ত্র-গুলি মোংলা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে জানিয়ে ওসি ইকবাল বাহার চৌধূরী বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।