করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অসহায় ও হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়িয়েছে সমকালের পাঠক সংগঠন সুহৃদ সমাবেশ, সিলেট জেলা। 

মঙ্গলবার থেকে সুহৃদরা নিজস্ব অর্থায়নে বর্তমানে কর্মহীন হয়ে পড়া শ্রমজীবী মানুষদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছেন। এক্ষেত্রে সরকারি নির্দেশনা মেনে জমায়েত এড়াতে দুস্থদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন সুহৃদরা। এই উদ্যোগ অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছেন সুহৃদ সমাবেশের সদস্যরা।  

মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর জিন্দাবাজারে সুহৃদ সমাবেশের একজনের বাসায় ‘সামাজিক দূরত্ব’ নিশ্চিত করে খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট করার পর বিভিন্ন টিমে ভাগ হয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু হয়। এসব প্যাকেট চাল, ডাল, আলু, তেল, সাবানের মত নিত্যপণ্য রয়েছে। এক্ষেত্রে শ্রমজীবী ও অসহায় পরিবারের মধ্যে যারা এখনও কোনো সহায়তা পাননি, তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। দুর্যোগময় পরিস্থিতি কাটিয়ে না উঠা পর্যন্ত সহায়তা কার্যক্রম চলবে বলে জানান সুহৃদরা।

এই কার্যক্রমের সমন্বয়ক সুহৃদ সমাবেশ সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সজীব চৌধুরী বলেন, দেশের এই সংকটে সমকাল সব সময় মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করছে। ইতোপূর্বে নগরীতে সচেতনতামূলক প্রচারণার পাশাপাশি দুস্থদের মধ্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। এবার নিজেদের সাধ্যমত অসহায় মানুষকে সাহায্য করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে দিনমজুর ও হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে।

এই কার্যক্রম সফল করতে কাজ করছেন সমকাল সুহৃদ সমাবেশ, সিলেট জেলার সভাপতি সুব্রত বসু, সিনিয়র সহ-সভাপতি সুজিত দাশ, সহ-সভাপতি হেনা মমো, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুচরিতা ভট্টাচার্য, সহ-সাধারণ সম্পাদক তন্বী দাস, বিজ্ঞান তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক অহনা মিতা, পাঠচক্র সম্পাদক তমালিকা দত্ত, কার্যনির্বাহী সদস্য আসমা আক্তার মনি, পংকজ রায়, লতিফুর রহমান উজ্জ্বল, স্বর্ণা রাণী চন্দ, সুহৃদ অরূপ দাস, তান্নি দত্ত প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, এরআগে সচেতনতামূলক কর্মসূচির অংশ হিসেবে দেশের বিভিন্ন স্থানের ন্যায় সিলেটে ‘আতঙ্ক নয় সচেতন হোন’ কর্মসূচি পালন করে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ ও আল-খায়ের ফাউন্ডেশন।