গৌরনদীতে গুজব ছড়ানোর দায়ে ছয়জনকে জরিমানা

প্রকাশ: ০১ এপ্রিল ২০২০     আপডেট: ০১ এপ্রিল ২০২০   

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মসজিদের মাইক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ব্যবহার করে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে  কলেজশিক্ষক ও মসজিদের ইমামসহ ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে তাদের আটক করা হয়। বুধবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করে তাদের মুক্তি দেয়া হয়।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারকৃতরাসহ এলাকার একটি চক্র মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও মসজিদের মাইক ব্যবহার করে প্রচারণা চালায় যে, করোনাভাইরাস নির্মূলে রাত ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার থেকে জীবানুনাশক স্প্রে করা হবে। অতএব ওই সময় কেউ ঘরের বাইরে যাবেন না। ঘরের বাইরে কোন কাপড়-চোপড় থাকলে তা দ্রুত ঘরে নিয়ে যান। এ ছাড়া বাসা বাড়ির সব দরজা জানালা বন্ধ রাখবেন।

এ প্রচার শোনার পর নড়ে চড়ে বসে স্থানীয় প্রশাসন। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে পুনরায় বিভিন্ন মসজিদের মাইক থেকে আগের ঘোষণাকে গুজব বলে প্রচার করা হয়।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি গোলাম সরোয়ার জানান, ফেসবুক ও মসজিদের মাইকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই রাতে গৌরনদী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক রফিকুল ইসলাম (৩৩), ওই বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষক দিপালী দেবনাথ (৬০), বার্থী ডিগ্রী কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের সিনিয়র প্রভাষক সালমা আক্তার (৫৫), উপজেলার উত্তর বিজয়পুর বাদামতলা জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক সরদার আল মামুন (৩০), বানিয়াশুড়ি জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুল কাদের (৪৫) ও অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট সিরাজুল ইসলাম সরদারকে (৪৮) আটক করে।

গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইসরাত জাহান জানান, 'উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গুজব রটনাকারীদের তাৎক্ষণিকভাবে প্রতিহত করা হয়েছে। ফলে আমরা বড় কোন অঘটনের সম্মুখীন হইনি। ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে প্রত্যেককে ২৫ হাজার টাকা করে মোট দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা করে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।'