ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার সেই সরকারি কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ন বলে নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। আইইডিসিআরে নমুনা পরীক্ষার পর তার শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ।

শুক্রবার সমকালকে একরাম উল্লাহ বলেন, ওই সরকারি কর্মকর্তাকে আইসোলেশনে রেখে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। পরীক্ষায় তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এখন তিনি হয়তো বাঞ্ছারামপুরে চলে আসবেন।

এর আগে হোম কোয়ারেন্টিন না মানায় এবং শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ থাকার খবর পেয়ে গত মঙ্গলবার বিকেলে বাঞ্ছারমপুর উপজেলার রূপসদী ইউনিয়নের রূপসদী গ্রামে গিয়ে সরকারি ওই কর্মকর্তার বাড়িতে লাল পতাকা টাঙিয়ে তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দেয় উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ। সঙ্গে তার বাবাকেও কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়। এরপর ওই কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি-না সেটি পরীক্ষা করতে নমুনা সংগ্রহের জন্য গত বুধবার দুপুরে ওই কর্মকর্তাকে সরকারি অ্যাম্বুলেন্সে করে আইইডিসিআরে পাঠানো হয়।

বাঞ্ছারামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসির উদ্দিন সারোয়ার জানিয়েছিলেন, ওই কর্মকর্তা তার কর্মরত এলাকায় ইতালি ফেরতদের সংস্পর্শে এসেছিলেন। তখন তাকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তিনি কোয়ারেন্টাইন না মেনে বাঞ্ছারামপুরে তার নিজ বাড়িতে চলে আসেন। সেজন্য সবাইকে সচেতন করতে তার বাড়িতে লাল পতাকা টাঙিয়ে দেওয়া হয়।