সিলেটে করোনাভাইরাস পরীক্ষা শুরু, ১১৬ জনের নমুনা

প্রকাশ: ০৭ এপ্রিল ২০২০   

সিলেট ব্যুরো

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

অবশেষে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার ওসমানী মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি ও ভাইরোলজি বিভাগে স্থাপিত বিশেষায়িত পলিমার্স চেইন রিঅ্যাকশন (পিসিআর) ল্যাব চালু হয়েছে। প্রথমদিনে সিলেট বিভাগের ১১৬ জনের স্যাম্পল (নমুনা) পরীক্ষার জন্য ল্যাবে এসেছে। প্রথম দফায় ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষার পর দ্বিতীয় দফায় ৯৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা যাবে। প্রতিদিন ল্যাবে দুই দফায় প্রায় ২শ জনের নমুনা পরীক্ষা করা যাবে।

ওসমানী হাপসাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার ডা. ইউনুছুর রহমান জানিয়েছেন, প্রথম দফায় সিলেটে বিভাগের ১১৬ জনের শরীরের নমুনা এসেছে। মঙ্গলবার আরও অনেক স্যাম্পল আসার কথা রয়েছে বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, প্রথমে তিনটি লেভেলে প্রসেস শেষে নমুনাগুলো পিসিআর মেশিনে দেওয়ার পর মূল পরীক্ষায় ১৪৫ মিনিট সময় লাগে। সবমিলে চার ঘন্টার মত সময় লাগবে। সিলেটে পরীক্ষা হলেও এখানে সরাসরি কোন রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে না। প্রতিদিনের রিপোর্টগুলো ঢাকায় আইইডিসিআরে পাঠানো হবে। 

ওসমানী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য ল্যাবে চারজন অধ্যাপকের সমন্বয়ে ৩১ জন টেকনিশয়ান কাজ করছেন। গত ৩০ মার্চ ল্যাব স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় মেশিন ও কিট ওসমানী হাসপাতালে আসে। বর্তমানে এক হাজারের মত কিট রয়েছে বলে জানিয়েছেন সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল। 

অচিরেই আরও কিট নিয়ে আসা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা করোনাভাইরাসের উপসর্গ রয়েছে, এমন রোগীদের নমুনা পরীক্ষা করতে বলবেন। এরপর ল্যাবে নমুনা এনে পরীক্ষা হবে।

সিলেটে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের লক্ষণ দেখা দিলে তাকে নগরীর শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে এই হাসপাতালে চারজন নারীসহ সাতজনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে নগরীর হাউজিং এস্টেট এলাকার একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে রিপোর্ট এসেছে। অন্যদের রিপোর্ট আজকালের মধ্যে পাওয়া যাবে বলে আশা করছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। এই হাসপাতালে ১শ শয্যার আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত রয়েছে।