পিরোজপুরে করোনা সন্দেহে নমুনা পরীক্ষায় এখনও কারও শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। বুধবার পিরোজপুরের সিভিল সার্জন ডা. হাসানাত ইউসুফ জাকি এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, বুধবার পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন উপজেলার ১৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় আইইডিসিআর এ পাঠানো হয়েছে। এরমধ্যে ৯ জনের রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এদের সকলের রিপোর্টই নেগেটিভ এসেছে।  নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে পিরোজপুর সদর, নাজিরপুর, ভান্ডারিয়া এবং মঠবাড়িয়া উপজেলার থেকে। তিনি আরও জানান, বাকি ৪ জনের রিপোর্ট এখনও পাওয়া যায় নি। তাদের রিপোর্ট এলে এখানকার পরিস্থিতি বোঝা যাবে।
এদিকে, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসন ও আইন শৃংখলা বাহিনী আগের চেয়ে আরও কঠোর হয়েছে। ঘরে থাকা এবং লোক সমাগম বন্ধ করার লক্ষ্যে পিরোজপুর জেলা শহরসহ প্রতিটি উপজেলায় ওষুধের দোকান ছাড়া সব প্রকার দোকানপাট বিকেল ৫ টার মধ্যে বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন।
পুলিশ জেলার বিভিন্ন সড়কে চেকপোষ্ট বসিয়ে যানবাহন চলাচলে নিয়ন্ত্রণ করছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাইরে বের হলে তাকে আইন শৃংখলা বাহিনী সদস্যদের কাছে জবাবদিহি করতে হচ্ছে।