পাবনার বেড়া উপজেলায় নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে খুশি নামের পাঁচ মাসের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তবে মৃতের পরিবারের দাবি, চিকিৎসকের অবহেলায় শিশুটির মৃত্যু হয়েছে।

খুশি উপজেলা সদরের সানিলা শাহপাড়া মহল্লার দিনমজুর খোরশেদ আলমের মেয়ে।

বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত ডাক্তার শারমিন জানান, খোরশেদ আলমের মেয়ে খুশি কয়েকদিন ধরে নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট ও ডায়রিয়ায় ভুগছিল। বুধবার সকালে খুশির অবস্থার অবনতি হলে পরিবারের লোকজন তাকে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। 

অন্যদিকে খুশির পরিবারের দাবি, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত খুশিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পরিবারের লোকজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক শিশুকে না দেখে ভর্তি না করে ব্যবস্থাপত্র দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেন। বুধবার সকালে পুনরায় তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।  

বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সরদার মিলন মাহমুদ বলেন, শিশুটি বাচ্চাটি নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ায় মারা গেছে। সে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত নয়। কারণ বাচ্চা বা তার বাবা মায়ের কোনও ভ্রমণের ইতিহাস নেই বা অন্য কোনো কারণও নেই। আমরা মনে করছি, এটি একটি সাধারণ মৃত্যু। তাই আমরা ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শিশুর নমুনা সংগ্রহ না করে মরদেহ বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছি।

কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়েছেন। এর পরেও যদি কারও দায়িত্ব পালনে কোনো গাফিলতি থাকে তবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান ডা. মিলন।

বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসিফ আনাম সিদ্দিকী বলেন, শিশুটিকে ঠিকমতো চিকিৎসা দেওয়া হয়নি বলে মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। এ ব্যাপারে কারো অবহেলা আছে কিনা সে ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে খোঁজ নিয়ে আমাকে জানাতে বলেছি।