মিঠাপুকুরে একশ’ বছরের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে প্রভাবশালীর বাড়ি নির্মাণ চেষ্টার প্রতিবাদে লকডাউন উপেক্ষা করে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন গ্রামবাসী। শুক্রবার উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের শাল্টিপাড়া গ্রামে শতশত নারী-পুরুষ রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন।

সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, লালবাগ-ভেন্ডাবাড়ি সড়কে শাল্টিপাড়া গ্রামের ভেতরে যাওয়ার জন্য একটি কাঁচা রাস্তা চলে গেছে। প্রায় একশ’ বছর ধরে গ্রামবাসী রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করছেন। সর্বশেষ ১৯৯২ সালের ভূমি রেকর্ডেও রাস্তার নাম রয়েছে। ওই রাস্তার দুই পাশে জমি রয়েছে প্রভাবশালী শফিকুল ইসলামের। তিনি সেতু মন্ত্রণালয়ের একজন উপ-সচিব বলে জানা গেছে।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া স্থানীয় ফুলজার হোসেন, জোবেদা বেগম, আজুবা বেগম, মকছুদা বেগম, তবার মিয়া বলেন, ‘প্রভাবশালী শফিকুল ইসলাম ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে সম্প্রতি রাস্তার নকশা পরিবর্তন করে নেন। এরপর গ্রামবাসীর চলাচলের রাস্তাটি বন্ধ করে সেখানে বাড়ি নির্মাণের চেষ্টা চালাচ্ছেন। রাস্তার দুই পাশে প্রাচীর দিয়েছেন। এখন তিনি রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করছেন।’

বিক্ষোভকারীরা জানান, শফিকুল ইসলাম ভাড়াটে সন্ত্রাসী ও উগ্রপন্থী লোকদের জড়ো করে গ্রামবাসীকে হুমকি দিচ্ছেন। তারা বলেন, ‘হামরা একশ’ বছর ধরি এই সড়ক দিয়া হাঁটা-চলা করি আসছু। জীবন গেইলেও রাস্তা বন্ধ করবার দিবার নই।’

গোপালপুর ইউপি চেয়ারম্যান আমিরুল পাইকাড় দীলিপ এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম বলেন, জনগণের স্বার্থ তোয়াক্কা না করে শফিকুল ইসলাম একক ক্ষমতাবলে রাস্তা বন্ধ করে বাড়ি নির্মাণের চেষ্টা করছেন। পরে, তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।’

মিঠাপুকুর থানার ওসি জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, ‘খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি মিমাংসার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে দ্বায়িত্ব দিয়েছি।’

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শফিকুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।