নোয়াখালীতে নারায়ণগঞ্জফেরত ২০ বছর বয়সী এক তরুণের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।  রোববার রাতে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাহবুবুর রহমান তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে ওই তরুণের শরীরে করোনা শনাক্ত হওয়ায় সোমবার সকালে সদর উপজেলার ব্রহ্মপুর গ্রামটি লকডাউন ঘোষণা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আরিফুল ইসলাম সরদার।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জানান, গত ১৪ এপ্রিল ওই তরুণ নোয়াখালীর সদর উপজেলার তার গ্রামের বাড়ি ব্রহ্মপুরেআসেন। তখন তার শরীরে জ্বর ছিল। স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে খবর পেয়ে ১৫ এপ্রিল সকালে তার নমুনা সংগ্রহ করে বাংলাদেশ ইনস্ট্রিটিউট অব ট্রফিক্যাল এন্ড এনফেকসাস ডিজিস (বিআইটিআইডি) চট্টগ্রামে পাঠানো হয়। রোববার রাতে ওই তরুণের রিপোর্ট করোনা পজেটিভ আসে।
তিন বলেন, হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ওই তরুণের শারীরিক অবস্থা বুঝে তাকে বাড়ির একটি কক্ষে অথবা ২০ শয্যা বিশিষ্ট চরআলগী হাসপাতালে আইসোলেশনে রাখা হবে। তিনি জানান,ওই তরুণের পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।  রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তাদের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আরিফুল ইসলাম সরদার জানান, করোনা আক্রান্ত ওই তরুণের বাড়িসহ গ্রামটি লকডাউন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তার বাড়ির সামনে একটি লাল পতাকা টাঙানো হয়েছে। তিনি বলেন, গ্রামটি প্রশাসণের নজরদারিতে রাখা হয়েছে।  যাতে কেউ গ্রাম থেকে বাইরে যেতে বা গ্রামের ভিতরে ঢুকতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখা হয়েছে।
এ পর্যন্ত নোয়াখোলীতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫ জন। এর মধ্যে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।