দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ত্রাণ, ভিজিডি ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৬১৯ বস্তা চাল জব্দ করেছে স্থানীয় প্রশাসনসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সোমবার জামালপুরের ইসলামপুরের গুঠাইল বাজার থেকে ত্রাণের ৩৮৮ বস্তা (২০ টন), জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার একটি গুদাম থেকে ৮৫ বস্তা, পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালিতে ৮ বস্তা (২৪০ কেজি), লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার সির্ন্দুনা ইউনিয়নের একটি গোডাউন থেকে ১২০ বস্তা, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে রোববার রাতে ১২ বস্তা (৩৫৭ কেজি) ও ঝালকাঠিতে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৬ বস্তা চাল জব্দ করা হয়। এসব ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। 

এদিকে বিভিন্ন স্থানে ত্রাণের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিজানুর রহমান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার দুপুরে উপজেলার চিনাডুলি ইউনিয়নের দুই আওয়ামী লীগ নেতা মোশারফ হোসেন ও মোয়াজ্জেম হোসেন এবং নন্দু নামের এক ব্যবসায়ীর গুদামে অভিযান চালিয়ে ৩৮৮ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। এ ব্যাপারে থানায় নিয়মিত মামলা হবে।

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী এলাকার ব্যবসায়ী মেহেদি হাসানের গুদাম থেকে ৮৫ বস্তা সরকারি চাল জব্দ করেছে র‌্যাব। এ সময় আটক করা হয় ব্যবসায়ী মেহেদিকে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জয়পুরহাট র‌্যাব-৫ ক্যাম্প কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাইমেনুর রশিদ।

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার জুগির হাওলা গ্রামের আইয়ুব আলীর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে খাদ্য অধিদপ্তরের লোগো সংবলিত ৮ বস্তা চাল উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় আটক করা হয় আইয়ুব আলী ব্যাপারীকে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ।

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সির্ন্দুনা ইউনিয়নের লোকমান হোসেন উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন একটি গোডাউন থেকে ১২০ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দুখু মিয়া নামের এক ভটভটি চালককে আটক করেছে পুলিশ। চালের বস্তার এক পাশে খাদ্য অধিদপ্তরের সিল ও অন্য পাশে বিসমিল্লাহ রাইস মিলের নাম থাকায় চালগুলো জব্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউএনও সামিউল ইসলাম।

লকডাউন ভেঙে ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভের পাঁচ দিন পর সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের কৈজুরী ইউনিয়নে ৩৫৭ কেজি (১২ বস্তা) চালসহ ডিলার আলাউদ্দিন শেখকে আটক করা হয়েছে। রোববার রাতে ইউএনও শাহ মো. শামছুজ্জোহা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুদ হোসেন অভিযান চালিয়ে এসব চাল জব্দ করেন।

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার শুক্তাগড় ইউনিয়নের ঘিগড়া গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য হোসেন আলীর বাসায় অভিযান চালিয়ে মজুদকৃত ৬টি বস্তায় ১৮০ কেজি সরকারি চাল জব্দ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ঘটনায় সাবেক ইউপি সদস্য হোসেন আলী ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার মাহাদি হাসানকে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেন ইউএনও সোহাগ হাওলাদার।

এদিকে নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পেড়লী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জারজিদ মোল্যার বিরুদ্ধে ভিজিডির চাল আত্মসাতের অভিযোগে থানায় একটি জিডি করেছেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের সুপারভাইজার মতিয়ার রহমান। খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার ময়ুরখীল ইউনিয়নের ৬ নম্বর ইউপি সদস্য রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে ত্রাণের চালসহ নিত্যপণ্য বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। 

ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের কুঞ্জনগর বাজারে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় দরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা কেজি মূল্যের চাল বিক্রিতে ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে রোববার বিকেলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ঘটনাস্থলে গেলে ডিলার সরোয়ার হোসেন মোল্যা পালিয়ে যান।

জেলা পরিষদ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চিঠি: কিশোরগঞ্জ অফিস জানায়, জেলার কটিয়াদী উপজেলায় ত্রাণের চাল চুরির ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে থাকা জেলা পরিষদ সদস্য মো. কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে গতকাল স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে জেলা পরিষদ। রোববার জেলা পরিষদের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান।