আমতলীতে এক ওষুধ কোম্পানিতে কর্মরত এরিয়া ম্যানেজার আক্রান্তের ৩ দিন পর তার স্ত্রী ও ৭ বছরের ছেলে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তারা ৩ জনই এখন হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। তাদের বাড়ি আগে থেকেই  লকডাউন অবস্থায় রয়েছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শংকর প্রসাদ অধিকারী জানান, ওষুধ কোম্পানিতে কর্মরত ব্যক্তি গত ২২ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হন। এর ৩ দিন পর তার স্ত্রী ও ৭ বছরের ছেলের শরীরে জ্বর দেখা দেওয়ায় ২৩ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সকালে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে  ঢাকয় রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠিয়ে দেওয়া হয়। ২৫ এপ্রিল শনিবার রাত ৮ টার সময় তাদের নমুনা প্রতিবেদন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসে। প্রতিবেদনে  তারা করোনায় আক্রান্ত বলে উল্লেখ করা হয়। 

শনিবার রাতে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকার মানুষের মাধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। 

আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরা পারভীন বলেন, পরিবারটি এখন ভাড়া বাসায় আইশোলেশন থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। চিকিৎসক তার বাড়িতে গিয়ে চিকিৎসা দিচ্ছেন।