ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে পেঁপে গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে চাচাতো ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়া করে সুচন্দ্রা দাস (১৫) নামে এক কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রোববার সকাল ১০টার দিকে উপজেলা সদরের পশ্চিম পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। মৃত সুচন্দ্রা দাস হরেন্দ্র দাসের মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শনিবার রাতে একটি ফুল গাছ নিয়ে সুচন্দ্রা দাস ও তার তার চাচাতো ভাই ধনঞ্জয়ের মধ্যে তর্ক হয়। পরে সুচন্দ্রা ধনঞ্জয়ের একটি ফুল গাছ দা দিয়ে কেটে ফেলে। বিষয়টি নিয়ে পারিবারিক ভাবে দু‘পক্ষের মধ্যে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার পর ধনঞ্জয় সুচন্দ্রার একটি পেঁপে গাছ কেটে ফেলে। বিষয়টি ভালোভাবে নিতে পারেনি সুচন্দ্রা। পরে রোবাবার সকাল ১০টার দিকে সুচন্দ্রা রান্নাঘরের আঁড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

নাসিরনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজেদুর রহমান জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পেরেছি পশ্চিম পাড়ায় একজন কিশোরী আত্মহত্যা করেছে। কী কারণে আত্মহত্যা করেছে সেটা জানতে পারিনি। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। এখন পর্যন্ত থানায় কেউ মামলা করেনি।