ঢাকা বুধবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩

রাসিকের ২৬ কাউন্সিলর বিদেশে, জানে না কেউ

রাসিকের ২৬ কাউন্সিলর বিদেশে, জানে না কেউ

রাজশাহী সিটি করপোরেশন ভবন- ফাইল ছবি

রাজশাহী ব্যুরো

প্রকাশ: ০৮ অক্টোবর ২০২৩ | ১৬:৩৫ | আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০২৩ | ১৬:৩৫

রাজশাহী সিটি করপোরেশনে (রাসিক) সাধারণ ও সংরক্ষিত মিলে কাউন্সিলর ৪০ জন। তাদের মধ্যে একসঙ্গে ২৬ জন ভারত ভ্রমণে গেছেন। এরই মধ্যে অতি ভারী বর্ষণে ২৪ ঘণ্টা রাজশাহী শহরের অধিকাংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে ছিল। এ সময় জরুরি সহায়তা দূরের কথা, কাউন্সিলরদের পক্ষ থেকে কোনো সাড়াই পাননি নগরবাসী। এতে তারা ব্যাপক হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয়েছেন। দেশের অর্থনীতিতে রিজার্ভ সংকটের এই মুহূর্তে জনপ্রতিনিধিরা দলবেঁধে বিদেশ সফরে যাওয়ার আগে করপোরেশন কিংবা স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি নেওয়ারও প্রয়োজন মনে করেননি। বিষয়টি নিয়ে চলছে তোলপাড়।

জানা গেছে, গত ৪ অক্টোবর বিকেল ৪টা থেকে পরদিন বিকেল ৪টা পর্যন্ত রাজশাহীতে সর্বোচ্চ ২৪৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। ১৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ এই বর্ষণে নগরের অধিকাংশ স্থানে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এ সময় বর্ণালী মোড়, আমবাগান, বিলসিমলা, তেরখাদিয়াসহ অনেক এলাকার বাসিন্দারা দীর্ঘ সময় পানিবেষ্টিত ছিলেন। ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান জলমগ্ন হয়ে পড়ায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এলাকাসহ নগরীর লক্ষ্মীপুরের শতাধিক বেসরকারি ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে হাঁটু থেকে কোমরপানি থাকায় চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় কাউন্সিলরদের কোনো তৎপরতা ছিল না। তাদের কোনো খোঁজও পাওয়া যায়নি। পরে জানা যায়, কাউন্সিলরদের ২৬ জনই প্রতিবেশী দেশে বেড়াতে গেছেন।

সূত্র জানায়, গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাসিকের ২৬ কাউন্সিলর দলবেঁধে ভারতে ঘুরতে গেছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-১ সরিফুল ইসলাম বাবু, ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-২ রজব আলী, প্যানেল মেয়র-৩ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১-এর কাউন্সিলর তাহেরা খাতুন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামাল হোসেন, ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. কামরুজ্জামান, ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাসেল জামান, ১০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্বাস আলী সরদার, ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল মোমিন, ১৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন, ১৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুস সোবহান, ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ২৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশরাফুল হাসান, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড ২-এর কাউন্সিলর আয়েশা খাতুন, সংরক্ষিত ওয়ার্ড ৩-এর কাউন্সিলর মুসলিমা বেগম।

নগরীর বর্ণালী মোড়ের বাসিন্দা সজীব জানান, দীর্ঘ সময় পানিতে ডুবে ছিল বর্ণালী মোড় ও আশপাশ। এখানে নৌকাও চলেছে। স্থানীয়রা আশায় ছিলেন, কাউন্সিলররা তাৎক্ষণিক সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেবেন। কিন্তু তাদের টিকির নাগালও পাওয়া যায়নি।

ভ্রমণের বিষয়ে জানতে প্যানেল মেয়র সরিফুল ইসলাম বাবুসহ বেশ কয়েকজনকে একাধিকবার হোয়াটসঅ্যাপে ফোন করেও পাওয়া যায়নি। তবে ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক জানান, কাশ্মীর দর্শনের জন্য তারা ভারতে গেছেন। কাউন্সিলরদের ভ্রমণ নিয়ে বিধিবিধান আছে, তবে অনুমতির বিষয়টি তাঁর জানা নেই।

রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম শরিফ উদ্দিন বলেন, কাউন্সিলররা বিদেশ ভ্রমণের অনুমতি নেননি। সিটি করপোরেশনের নিয়ম অনুযায়ী বিনা অনুমতিতে তারা কোনোভাবেই ব্যক্তিগত প্রয়োজন কিংবা দাপ্তরিক কাজে বিদেশ সফরে যেতে পারেন না।

বিনা অনুমতিতে কাউন্সিলরদের বিদেশ ভ্রমণের বিষয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিটি করপোরেশন-২ শাখার উপসচিব মাহবুবা আইরিন জানান, অনুমতি ছাড়া কোনো জনপ্রতিনিধি বিদেশ ভ্রমণ করতে পারেন না। দেশের বাইরে যেতে চাইলে সিটি করপোরেশনের মাধ্যমে আবেদন করতে হয়। সেই আবেদন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। এরপর মন্ত্রণালয় তাদের ভ্রমণের অনুমতি দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করে। এ ছাড়া রাজশাহী সিটি করপোরেশনের কোনো কাউন্সিলরকে বিদেশ ভ্রমণের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

আরও পড়ুন